জাতীয়

নেশায় আচ্ছন্ন স্টেশন মাস্টার, প্রায় দু’‌ঘন্টা দাঁড়িয়ে একাধিক এক্সপ্রেস, তোলপাড় রেল

সবুজ সংকেত না পেয়ে বিভিন্ন স্টেশনে আটকে রয়েছে একাধিক এক্সপ্রেস। বার বার ফোন করেও পাওয়া যায় না সহকারী স্টেশন মাস্টার অনিরুদ্ধ কুমারকে। যার জেরে প্রায় দেড় ঘণ্টা ধরে বন্ধ থাকে দিল্লী-হাওড়া রুটে ট্রেন চলাচল।

ঘটনাটি ঘটে উত্তরপ্রদেশের কঞ্চৌসী স্টেশনে।গত বুধবার রাত ১২টার পর থেকে প্রায় দেড়টা পর্যন্ত দিল্লি–হাওড়া রুটের সমস্ত ট্রেন চলাচল বন্ধ ছিল। সহকারী স্টেশন মাস্টারের সবুজ সংকেত না পেয়ে বৈশালী এক্সপ্রেস, সঙ্গম এক্সপ্রেস, ফরাক্কা ও মগধ এক্সপ্রেস দাঁড়িয়ে পড়ে বিভিন্ন স্টেশনে।

তবে কঞ্চৌসী স্টেশনের দায়িত্বে ছিলেন সহকারী স্টেশন মাস্টার অনিরুদ্ধ কুমার। কিন্তু রাতের সময় ঝোঁকের বশে মদ্যপান করে চেয়ারে বসে একেবারে নাক ডেকে ঘুমিয়েই পড়েন অনিরুদ্ধ কুমার। যার ফলে এই বিপত্তি ঘটে যায়। তাঁর থেকে সবুজ সংকেত না পেয়ে বিভিন্ন স্টেশনেই আটকে পড়ে একাধিক এক্সপ্রেস।

বার বার ফোন করেও যখন তাঁকে না পাওয়া যায়, তখন পরিস্থিতি বেগতিক দেখে, রেলের উচ্চপদস্থ কর্তারা স্টেশনে ছুটে আসেন। অনিরুদ্ধ কুমারের কেবিনে গিয়ে তাঁরা সবটা দেখে হতবাক হয়ে পড়েন। স্টেশন মাস্টার বিশ্বম্ভর দয়াল জানান, কেবিনে ঢুকেই তাঁরা দেখেন সেখানে নাক ডেকে ঘুমাচ্ছেন সহকারী স্টেশন মাস্টার অনিরুদ্ধ কুমার। কোনরকমে পরিস্থিতি সামাল দেন স্টেশন মাস্টার বিশ্বম্ভর।

সবকিছু সামলে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক করতে প্রায় রাত ২ টো বেজে যায়। তবে ইতিমধ্যেই অনিরুদ্ধের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই চার্জশিট তৈরি করা হয়েছে। পরীক্ষা করে যদি প্রমাণ হয়, যে অনিরুদ্ধ সেইসময় সে মদ্যপ অবস্থায় ছিলেন, তাহলে তাঁর বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলেও জানা গিয়েছে।

সূত্র : বাংলা হান্ট

আরও পড়ুন ::

Back to top button