রাজনীতি

‘বাংলাদেশের কোনও নাগরিক ভারতের মন্ত্রী হতে পারেন না’: ডেরেক ও’ব্রায়েন

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিকের (Nisith Pramanik) নাগরিকত্ব ইস্যু নিয়ে এবার আসরে নামছে তৃণমূল কংগ্রেস। নিশীথের নাগরিকত্ব বিতর্ক ইস্যু সংসদে উত্থাপন করা হবে বলে সোমবার জানালেন তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন (Derek O’Brien)। নিশীথ প্রামাণিকের নাগরিকত্ব ইস্যুর পাশাপাশি ইজরায়েলি সংস্থা পেগাসাসের ফোনে আড়িপাতার ঘটনাও সংসদে তোলা হবে বলে জানালেন ডেরেক।

নিশীথ ইস্যু প্রসঙ্গে সোমবার ডেরেক ও’ব্রায়েন বলেছেন, ‘বাংলাদেশের কোনও নাগরিক ভারতের মন্ত্রী হতে পারেন না। আমরা সংসদে এই ইস্যু তুলব’। উল্লেখ্য, নিশীথ প্রামাণিক আদতে বাংলাদেশের নাগরিক বলে দাবি করেছেন অসমের সাংসদ রিপুন বোরা। এ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠিও দিয়েছেন তিনি। এই দাবি উঠতেই নিশীথের নাগরিকত্ব ইস্যুতে কেন্দ্রকে টার্গেট করার কৌশল নিচ্ছে জোড়াফুল শিবির।

রিপুন বোরার দাবি, বেশ কিছু সংবাদমাধ্যমে উল্লেখ করা হয়েছে নিশীথ প্রামাণিক আদতে একজন বাংলাদেশি নাগরিক। তিনি বলেছেন, মোদী মন্ত্রিসভার কনিষ্ঠতম এই মন্ত্রীর জন্মস্থান হরিনাথপুর। যা বাংলাদেশের গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ি থানার অন্তর্গত। শুধু তাই নয়, নিশীথ বাংলাদেশ থেকে পশ্চিমবঙ্গে একটি কম্পিউটার কোর্স করতে এসেছিলেন।

সেই কোর্স শেষ করেই তিনি প্রথমে তৃণমূলে যোগ দেন। এরপর দলবদল করে BJP-তে যোগদান করে কোচবিহারের সাংসদ নির্বাচিত হন। এমনকী, নিশীথ প্রামাণিক নাকি নিজের নির্বাচনী হলফনামায় কোচবিহারের ঠিকানার ক্ষেত্রেও ভুয়ো তথ্য পেশ করেছেন।

অন্যদিকে, মোদী সরকারকে নিশানা করে ডেরেক বলেছেন, ‘মূল বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা হোক চায় না সরকার। কেন্দ্রীয় সরকার শুধু নিজের মত চাপাতে চায়। যেভাবে সংসদ চলছে তা বেআইনি। বিরোধীদের কন্ঠরোধের চেষ্টা করা হচ্ছে। ফোনে আড়িপাতার ঘটনায় আরও অনেকের নাম বেরোবে’। উল্লেখ্য, আজ থেকে শুরু হয়েছে বাদল অধিবেশন। সংসদে অধিবেশন শুরুর দিনই হই-হট্টগোল বাধে।

সুত্র : এই সময়

আরও পড়ুন ::

Back to top button