পুরুলিয়া

শাশুড়ির সঙ্গে মোবাইল ফোন ব্যবহার নিয়ে বিবাদ, ২ সন্তানকে নিয়ে কুয়োয় ঝাঁপ বধূর

মোবাইল ফোন ব্যবহার করায় শাশুড়ির ভর্ৎসনা শুনে ২ সন্তানকে নিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন এক বধূ। শীতলা মাহাতো নামে ওই বধূ প্রাণে বেঁচে গেলেও মৃত্যু হয়েছে তাঁর ২ শিশুকন্যার। মর্মান্তিক এই ঘটনা পুরুলিয়ার মফস্বল থানার চকড়া গ্রামের। আহত শীতলাদেবীকে দেবেন মাহাতো সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, মাহাতোদের যৌথ পরিবার। পুরুলিয়া শহরের একটি দোকানে কাজ করেন শীতলাদেবীর স্বামী লক্ষ্মণ। এদিন তিনি কাজে বেরিয়ে যাওয়ার পর স্ত্রী মোবাইল ফোনে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। তা দেখে শাশুড়ি তাঁকে বকাঝকা করলে ২ মেয়েকে কাপড়ে বেঁধে কুঁয়োয় ঝাঁপ দেন তিনি।

মায়ের কাণ্ড দেখে প্রতিবেশীদের ডাকে ১২ বছরের ছেলে। তাঁরা দ্রুত তিন জনকে উদ্ধারের চেষ্টা করেন। কিন্তু কুয়ো থেকে তোলার আগেই মৃত্যু হয় ৩ ও ৫ বছর বয়সী ২ কন্যাসন্তানের। গুরুতর আহত অবস্থায় দেবেন মাহাতো সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় শীতলাদেবীকে।

প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, ২ মেয়ের মধ্যে বড় মেয়েটি কাপড় ছিঁড়ে অনেক গভীরে পড়ে গিয়েছিল। তাই তাকে উদ্ধার করতে সময় লেগেছে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ। দেহ দুটি ময়নাতদন্তের জন্য নিয়ে গিয়েছে তারা। ওদিকে ২ মেয়েকে হারিয়ে হাসপাতালে বিহ্বল মা।

সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

আরও পড়ুন ::

Back to top button