বলিউড

‘যৌনতা দেখালেই তা পর্ন হয়ে গেল?’, আদালতে প্রশ্ন রাজ কুন্দ্রার আইনজীবীর

পর্নফিল্ম বানিয়ে সেগুলো ‘হটশট’ নামে অ্যাপের মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে সোমবার রাতেই শিল্পা শেট্টির স্বামী (Shilpa Shetty) রাজ কুন্দ্রাকে (Raj kundra) গ্রেফতার করেছে মুম্বই পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ। একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে আসছে পর্নফিল্ম কাণ্ডে। গোটা ইন্ডাস্ট্রিজুড়ে শোরগোল।

তবে রাজের গ্রেফতারি নিয়ে এবার আদালতে প্রশ্ন তুলল তাঁর আইনজীবী আবাদ পোণ্ডে। বিচারপতির কাছে তাঁর সাফ প্রশ্ন, ‘যৌনতা দেখালেই তা পর্ন হয়ে গেল? অ্যাপে দেখানো কন্টেটকে অশ্লীল বলা যেতে পারে, কিন্তু কখনওতা তাকে পর্নফিল্মের আওতায় ফেলা যায় না।’

রাজ কুন্দ্রার আইনজীবী আবাদের সাফাই, ‘আইন অনুযআয়ী দর্শকরা যদি সঙ্গমরত কোনও যুগলকে পর্দায় দেখতে পান, তবেই সেটা পর্নফিল্ম হিসেবে গণ্য হবে। নতুবা, সেটাকে অশ্লীল ভিডিও বলা যেতে পারে। বর্তমানে ওয়েব সিরিজে যে ধরণের কন্টেট দেখানো হয়, পুলিশ কি সেটা খতিয়ে দেখেছে? রাজের অ্যাপে এমন কোনও দৃশ্য নেই যেখানে দুজন মানুষ সঙ্গমে লিপ্ত হয়েছেন। তাই সেগুলোকে সরাসরি পর্ন ফিল্ম বলাও যায় না।’

এখানেই শেষ নয়, আইনজীবী অভিযোগ তুলেছেন মুম্বই পুলিশের তরফে বেআইনিভাবে রাজকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁর দাবি, ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪১ নম্বর নোটিসে স্বাক্ষর করানো হয়েছিল রাজ কুন্দ্রাকে। যার অর্থ, তদন্তে সহযোগিতা করার জন্য তাঁকে থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। তবে তা সত্ত্বেও কেন রাজ কুন্দ্রকে গ্রেফতার করা হল? সেই প্রশ্নও আদালতে তুলেছেন আবাদ।

প্রসঙ্গত, রাজ কুন্দ্রার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪২০ (প্রতারণা), ৩৪, ২৯২ এবং ২৯৩ (নিষিদ্ধ বিজ্ঞাপন সম্পর্কিত) ধারায় মামলা দায়ের হয়েছে। মুম্বই পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, রাজের ই-মেল, চ্যাট ঘেঁটে পর্নফিল্ম সম্পর্কিত পেমেন্টের হদিশও মিলেছে। ভারত থেকে ওই ভিডিও আপলোড করতে পারতেন না বলে ইংল্যান্ডে বন্ধু প্রদীপ বক্সীকে উইট্রান্সফারের মাধ্যমে ভিডিও পাঠাতেন শিল্পার স্বামী।

তিনিই তখন সেখান থেকে ‘হটশট’-এ ভিডিও আপলোড করতেন। এরমাঝেই, পর্নফিল্মের রমরমা বেড়ে যাওয়ায় গুগলের তরফে রাজের অ্যাপকে নিষিদ্ধ বলে জানানো হয়। তখনই ‘প্ল্যান বি, বলিফেম’ নামে এক নয়া পর্ন অ্যাপ তৈরির সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন রাজ কুন্দ্রা। এমনটাই জানানো হয়েছে পুলিশের তরফে।

সূত্র: দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

আরও পড়ুন ::

Back to top button