ঝাড়গ্রাম

নিজের করোনা পরীক্ষা করিয়ে শিবিবের সূচনা করলেন মহকুমাশাসক

ঝাড়গ্রাম: নিজের করোনা পরীক্ষা করিয়ে ঝাড়গ্রাম জেলা শহরের বহুতল আবাসনে করোনা পরীক্ষা শিবিরের আনুষ্ঠানিক সূচনা করলেন মহকুমাশাসক। বৃহস্পতিবার শহরের ভিশাল মেগামর্টের বহুতলের বাসিন্দাদের র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষা করানোর জন্য পুরসভার উদ্যোগে সেখানেই শিবির করা হয়।

বাসিন্দাদের সঙ্কোচ দূর করতে ঝাড়গ্রাম সদরের মহকুমাশাসক বাবুলাল মাহাতো প্রথমে নিজের করোনা পরীক্ষা করান। মহকুমাশাসক এদিন নিজেই নিজের নমুনা সংগ্রহ করেন। ঝাড়গ্রাম শহরে করোনার সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। পুরসভার মতে, এলাকায় করোনা পরীক্ষার শিবির হলেও এতদিন পরীক্ষা করাচ্ছিলেন না বহুতল আবাসনের বাসিন্দারা। এদিকে বহুতলের বাসিন্দারা একের পর এক সংক্রমিত হচ্ছেন। তবে মহকুমাশাসক জানান, এদিন ভিশাল মেগা মার্টের বহুতল আবাসনের ৭৯ জনের পরীক্ষা করানো হলেও সবার রিপোর্ট নেগেটিভ হয়েছে।

এদিন ওই শিবিরে ছিলেন পুরসভার নির্বাহী আধিকারিক তুষারকান্তি সৎপথী, করোনা পরীক্ষা শিবিরের দায়িত্বপ্রাপ্ত পুরকর্মী বিকাশ ষড়ঙ্গী। মহকুমাশাসক জানান, পর্যায়ক্রমে শহরের সব ক’টি বহুতল আবাসনেই করোনা পরীক্ষার শিবির হবে।

পুরসভা সূত্রে জানা গিয়েছে, শহরে ৫৫ টি বহুতল অবসনের মধ্যে ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের আবাসন গুলিতে ব্যাপক হারে সংক্রমণ ছড়িয়েছে। কিছুদিন আগে এলাকা গন্ডিবদ্ধ করে করোনা পরীক্ষার শিবির করা হলেও বহুতল আবাসন গুলির বেশির বাসিন্দা করোনা পরীক্ষা করাতে যাননি। এরপরই বিভিন্ন বহুতল আবাসনের কমিটির কর্মকর্তাদের আলোচনায় ডেকে ঝাড়গ্রামের জেলাশাসক জয়সি দাসগুপ্ত জানিয়ে দেন বহুতল গুলির সব বাসিন্দাদের করোনা পরীক্ষা করাতে হবে। জেলাশাসকের নির্দেশ ক্রমে এদিন থেকে করোনা পরীক্ষার শিবির শুরু হল।

আরও পড়ুন ::

Back to top button