ঝাড়গ্রাম

সেলফি তুলতে গিয়ে জলে ডুবে মারা গেল ৮ বছরের এক শিশু

সেলফি তুলতে গিয়ে জলে ডুবে মারা গেল ৮ বছরের এক শিশু - West Bengal News 24

বার বার বারণ করা সত্ত্বেও যে একশ্রেনীর পর্যটকেরা সতর্ক হচ্ছেন না সেটা আরও একবার চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল এক মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। ঝাড়গ্রাম জেলার বেলপাহাড়িতে ঘাগড়াবুড়ি ফলসে বৃহস্পতিবার মোবাইলে সেলফি তুলতে গিয়ে জলে ডুবে মারা গেল মাত্র ৮ বছরের এক শিশু।

তৃতীয় শ্রেণীর ওই ছাত্র এদিন মায়ের মোবাইল নিয়ে ওই খরস্রোতা ঝরনার মধ্যে নেমে সেলফি তুলতে গিয়ে পড়ে যায় গভীর গর্তে। পরে তাঁর দেহ মেলে জলের অনেকটাই নীচে পাথরের খাঁজে আটকে থাকা অবস্থায়। স্থানীয় হাসপাতালে তাকে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানেই তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিত্‍সকেরা।

আরো পড়ুন : লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের ফর্ম পূরণের নামে টাকা দাবি, অভিযুক্তকে হাতেনাতে ধরল পুলিশ

জানা গিয়েছে, দুদিন আগেই দক্ষিণ ২৪পরগনার বারুইপুরের বাসিন্দা সুশান্ত দাস তাঁর পরিবার ও বন্ধুবান্ধব নিয়ে ঘুরতে আসেন ঝাড়গ্রামে। বৃহস্পতিবার তাঁরা ঘুরতে যান বেলপাহাড়ির পর্যটন কেন্দ্রগুলিতে। এদিন বেলা ১১টা নাগাদ ঘাগড়াবুড়ি ঝর্না দেখতে গিয়ে সুশান্তবাবুর বছর আটের ছেলে সমৃদ্ধ দাস ছবি তুলতে গিয়ে পা পিছলে নদীর জলে তলিয়ে যায়।

আরো পড়ুন : রামকৃষ্ণ আশ্রমে মদের আসর, প্রতিবাদী সন্ন্যাসীকে গালিগালাজ করে মুখে মদ ঢেলে পালালো যুবকরা

দীর্ঘক্ষন খোঁজ চালানোর পর দেখা যায় জলের তলায় পাথরের খাঁজে আটকে রয়েছে শিশুটি। পরে গ্রামের লোকের সহায়তায় উদ্ধার করা হয় শিশুটিকে। দ্রুত তাকে বেলপাহাড়ি প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে আনা হলে সেখানেই তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিত্‍সকেরা।

পরে ওই শিশুর দেহ ঝাড়গাম জেলা হাসপাতালে নিয়ে আসা হয় ময়নাতদন্তের জন্য। তবে এদিনের ঘটনার জেরে আগামী দিনে যাতে ঘাঘড়াবুড়ি ফলসে এই ধরনের ঘটনা না ঘটে তার জন্য সেখানে নজরদারির ব্যবস্থা করার পাশাপাশি বিপদজনক এলাকা চিহ্নিত করার কাজ করা হবে বলে জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে।

সূত্র: এই মুহুর্তে

আরও পড়ুন ::

Back to top button