জাতীয়

‘‌রক্ত লেগে থাকা হাতকেই আতিথ্য.‌.‌’‌, রাষ্ট্রসঙ্ঘে চীন, পাকিস্তানকে নিশানা জয়শঙ্করের

S. Jaishankar : ‘‌রক্ত লেগে থাকা হাতকেই আতিথ্য.‌.‌’‌, রাষ্ট্রসঙ্ঘে চীন, পাকিস্তানকে নিশানা জয়শঙ্করের - West Bengal News 24

রবিবারই আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল দখল করেছে তালিবান। ক্ষমতা ছেড়ে পালিয়েছেন প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট আশরফ গনি। একদান বন্ধু আফগানিস্তানকে নিয়ে তার পর থেকেই চাপ বেড়েছে ভারতের। তবে সেই নিয়ে মুখ খোলেনি দিল্লি। আফগানিস্তান তালিবানি দখলে যাওয়ার পর এই প্রথম নিউ ইয়র্কে রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে মুখ খুলল ভারত। সন্ত্রাসবাদ নিয়ে তীব্র আশঙ্কা প্রকাশ করলেন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।

তিনি বললেন, ‘‌আফগানিস্তানে হোক বা ভারকের বিরুদ্ধে, জইশ-ই-মহম্মদ, লস্কর-এ-তইবার মতো জঙ্গি গোষ্ঠীগুলো ক্রমাগত মুক্তভাবে উত্‍সাহের সঙ্গে মাথাচাড়া দিচ্ছে। হাক্কানি নেটওয়ার্কের সক্রিয়া চিন্তা বাড়াচ্ছে।’‌ নাম না করে যে আসলে তালিবানদের দিকেই আঙুল তুলছেন জয়শঙ্কর, তা আর বলতে হয় না। কারণ তালিবান আফগানিস্তানে ক্ষমতা দখলের পরই সেখানে পাক মদতপুষ্ট জইশ আর লস্কর জঙ্গিরা সক্রিয় হয়েছে। জঙ্গি গোষ্ঠী হাক্কানি নেটওয়ার্কের হাতে কাবুল পাহারার ভার ছেড়েছে তালিবান।

আরো পড়ুন : ধ্বংসাত্মক শক্তি কিছু সময়ের জন্য সক্রিয় থাকে, অনন্তকাল নয় : প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

জয়শঙ্কর এও বললেন, ‘‌আমাদের প্রতিবেশি দেশে আইএসআইএল খোরাসান আরও সক্রিয় হয়েছে এবং নিজেদের বিস্তৃতি বাড়াতে চাইছে।’‌ তাঁর হুঁশিয়ারি, এর ফলে আন্তর্জাতিক শান্তি এবং নিরাপত্তা বিপাকে পড়বে।

জয়শঙ্কর কোভিডের সঙ্গে সন্ত্রাসবাদের তুলনা টেনেছেন বৈঠকে। বলেন, ‘‌কোভিড মহামারির সঙ্গে মিল রয়েছে বিষয়টির— আমরা সকলে নিরাপদ না হলে কেউই কিন্তু নিরাপদ নই।’‌ আফগানিস্তানের ঘটনা যে ভারতের জন্য অত্যন্ত উদ্বেগের, এ কথা স্পষ্ট জানিয়ে বিদেশমন্ত্রীর বক্তব্য, ভারতের সীমান্তে সন্ত্রাসবাদের নিরাপদ স্বর্গরাজ্য গড়ে উঠেছে।

এর পরই চীন এবং পাকিস্তানকে খোঁচা দিয়ে জয়শঙ্কর বলেন, ‘‌যাদের হাতে রক্ত লেগে রয়েছে, সেই সন্ত্রাসবাদীদের আতিথ্য দেবে ওরা, আবার সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে বক্তৃতাও দেবে। এই দু’মুখো কাজকর্ম বন্ধ হওয়া দরকার।’‌

সূত্র : আজকাল

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button