কলকাতা

ভুয়ো IPS পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগ, গোয়েন্দাদের হাতে ধৃত এক

ভুয়ো আইপিএস পরিচয় আবারও প্রতারণার জাল এ রাজ্যে। এবার প্রতারক ভিন্ রাজ্যের বাসিন্দা। তবে প্রতারণার জাল ছড়িয়েছিল এ রাজ্যেও। কলকাতার কয়েকজনও ফাঁদে পড়ে টাকা খুইয়েছিলেন। লালবাজারের সাইবার সেলে গুচ্ছ গুচ্ছ অভিযোগ জমা পড়ছিল। তদন্তে নেমে সুদূর রাজস্থান থেকে অভিযুক্তকে পাকড়াও করেছে কলকাতা পুলিশের সাইবার সেল। পুলিশ সূত্রে খবর, ধৃতের নাম রাহুল খান। রাজস্থানেরই বাসিন্দা। আলওয়ার থেকে তাকে ধরেছে পুলিশ।

ট্রানজিট রিমান্ডে রাজ্যে আনার পরে ১ সেপ্টেম্বর অবধি পুলিশি হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। ধৃতকে জেরা করে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, রাজস্থানে বসেই প্রতারণা জাল বিছিয়েছিল রাহুল। নিজেকে আইপিএস অফিসার পরিচয় দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় কয়েকটি অ্যাকাউন্ট খুলেছিল। তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টেও আইপিএস অফিসার পরিচয় দেওয়া ছিল। একে কাজে লাগিয়েই নানা সমস্যার সমাধান করে দেবে বলে বিভিন্ন রাজ্যের মানুষজনকে ফাঁসিয়েছিল রাহুল।

আরো পড়ুন : ‘চিনা কালী মন্দির’ মা কালী মন্দিরের প্রসাদে চাউমিন, জানুন কোথায়

তার মধ্যে এ রাজ্যেরও কয়েকজন ছিলেন। কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ জানাচ্ছে, বিভিন্ন মামলা মোকদ্দমা থেকে মুক্ত করার আশ্বাস দিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিত রাহুল। টাকা না দিতে পারলে মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়ার হুমকিও দিত। এই প্রতারণা চক্রের জাল কতটা ছড়িয়ে আছে তাই এখন তদন্ত করে দেখছে পুলিশ। রাহুল একা নাকি তার সঙ্গে রাজস্থানের কোনও বড় গ্যাং জড়িত সেটাও খোঁজ নেওয়া হচ্ছে।

এই চক্রে প্রভাবশালীদের হাত রয়েছে কিনা তাও তদন্ত করে দেখছেন গোয়েন্দা অফিসাররা। রাজ্যে একদিকে চিট ফান্ড, কয়লা কেলেঙ্কারি কাণ্ডের জোরদার তদন্ত করছে সিবিআই, ইডি, অন্যদিকে একের পর এক ভুয়ো পরিচয় দেওয়া আইপিএস, আইএএস, সিবিআই অফিসার, আইনজীবী, মানবাধিকার কর্মী ধরা পড়ছে।

আরো পড়ুন : শীঘ্রই চালু হোক লোকাল ট্রেন! চিঠি রেলকর্তার

দুমাস আগেই কলকাতা পুলিশের জালে ধরা পড়েছিল আইপিএস রাজর্ষি ভট্টাচার্য ওরফে বাবাই। নীলবাতি লাগানো গাড়ি নিয়ে ঘুরত অভিযুক্ত রাজর্ষি ভট্টাচার্য। নিজেকে আইপিএস অফিসার পরিচয় দিত। এমনকি ঘনিষ্ঠমহলে বলত, জাতীয় তদন্তকারী সংস্থার হয়ে স্পেশাল মিশনে রয়েছে। তার নিরাপত্তারক্ষী ও গাড়ির চালককেও পাকড়াও করা হয়। এই ভুয়ো চক্রে আরও কত নতুন সংযোজন হয় সেটাই এখন তদন্ত করে দেখছে পুলিশ।

সূত্র: দ্য ওয়াল

আরও পড়ুন ::

Back to top button