রাজ্য

কৃষকদের সুবিধার্থে চালানো হোক স্পেশাল ট্রেন, রেলকে চিঠি লকেট চট্টোপাধ্যায়ের

কৃষকদের কথা ভেবে হাওড়া ডিভিশনেও চালানো হোক কৃষক স্পেশাল ট্রেন। অনুরোধ জানিয়ে হাওড়া ডিভিশনের ডিভিশনাল রেলওয়ে ম্যানেজারকে (ডিআরএম) চিঠি দিলেন হুগলির বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। ১ সেপ্টেম্বর বুধবার এই চিঠিটি পাঠিয়েছেন তিনি। চিঠিতে কাটোয়া-হাওড়া এবং তারকেশ্বর-হাওড়া শাখায় কৃষকের সবজি বহনের স্বার্থে কৃষক স্পেশাল ট্রেন চালানোর প্রস্তাব দিয়েছেন তিনি।

সাংসদের যুক্তি, এই মুহূর্তে যেহেতু লোকাল ট্রেন চলছে না তাই সড়কপথে সবজি বহনে কৃষকদের সময় যেমন বেশি লাগছে তেমনি তা ব্যয়বহুল। হাওড়া রেল ডিভিশনের লাইন যেহেতু হুগলি, বর্ধমান ও নদীয়া জেলার অধিকাংশ জায়গার ওপর দিয়ে গেছে এবং এই জায়গাগুলিতে বিপুল সবজি উত্‍পাদন হয় তাই কৃষকদের সবজি বহনের স্বার্থে রেল যেন কাটোয়া-হাওড়া এবং তারকেশ্বর-হাওড়া শাখার মধ্যে কৃষক স্পেশাল ট্রেন চালু করে। যেখানে টিকিট কেটে কৃষকরা তাঁদের শাকসবজি নিয়ে এই বিশেষ ট্রেনে করে নিয়ে আসবেন।

আরো পড়ুন : নিয়ন্ত্রণে থাকলেও করোনা সংক্রমণে ক্রমশ চিন্তা বাড়াচ্ছে কলকাতা! একদিনে প্রাণ হারিয়েছেন ১৩ জন

প্রসঙ্গত, কৃষক ও দুধ ব্যবসায়ীদের স্বার্থে ইতিমধ্যেই শিয়ালদা ডিভিশনে গেদে ও শান্তিপুর থেকে বিশেষ ট্রেন চালাতে উদ্যোগ নিয়েছে পূর্ব রেল। যার এই মুহূর্তে ট্রায়াল রান চলছে বলে পূর্ব রেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। মূলত সময় বাঁচিয়ে কৃষক ও দুধ ব্যবসায়ীরা যাতে তাঁদের উত্‍পাদিত সবজি এবং ছানা শহরে পৌঁছে দিতে পারেন সেকথা মাথায় রেখেই এই উদ্যোগ।

অন্যদিকে কাটোয়া বা তারকেশ্বর শাখার বিভিন্ন স্টেশন থেকে প্রচুর কৃষক তাঁদের সবজি নিয়ে শহর এবং মফস্‌সলের বিভিন্ন জায়গায় পৌঁছে দেন। ফলে আগামিদিনে সাংসদের অনুরোধে হাওড়া ডিভিশনে যদি কোনও স্পেশাল ট্রেন চালু হয় তবে অবশ্যই তাঁরা উপকৃত হবেন বলেই মনে করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক একলব্য চক্রবর্তী বলেন, ‘ডিআরএম জানিয়েছেন তিনি চিঠি পেয়েছেন। বিষয়টি বিবেচনা করে দেখা হচ্ছে।’

সূত্র: আজকাল

আরও পড়ুন ::

Back to top button