মালদা

মোবাইল চোর সন্দেহে যুবককে গণপিটুনি, হাসপাতালে মৃত্যু আক্রান্তের

বাবুল হক

প্রতীকী ছবি

ফের গণপিটুনির ঘটনা রাজ্যে। মোবাইল চোর সন্দেহে এক যুবককে পিটিয়ে খুনের (Murder) ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়াল মালদহের (Malda) হরিশচন্দ্রপুরে। তবে এখনও এই ঘটনায় পুলিশে অভিযোগ দায়ের হয়নি।

জানা গিয়েছে, মৃত যুবকের নাম প্রভাত মণ্ডল। তাঁর বয়স ২৩ বছর। মালদহের হরিশচন্দ্রপুরের পিপলতলার বাসিন্দা তিনি। ভিন রাজ্যে শ্রমিকের কাজ করতেন। তবে করোনা পরিস্থিতিতে দীর্ঘদিন ধরেই মালদহের বাড়িতেই থাকছিলেন তিনি। জানা গিয়েছে, বাড়ি ফেরার পর থেকেই মোবাইলে ব্যস্ত থাকতেন ওই যুবক। গেম খেলতেন বলেই দাবি পরিবারের।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, শনিবার রাতে বাড়িতেই ছিলেন প্রভাত। সেই সময় একটি ফোন আসে। তারপরই তিনি চলে যান। এরপর দীর্ঘক্ষণ পেরিয়ে গেলেও বাড়ি ফেরেননি প্রভাত। রবিবার সকালে পরিবারের সদস্যরা জানতে পারেন, মোবাইল চুরির অভিযোগে মারধর করা হয়েছে প্রভাতকে। তাকে উদ্ধার করতে গেলে ১৫ হাজার টাকা দাবি করা হয়।

আরও পড়ুন : বারুইপুরে রেল কারখানায় বিস্ফোরণ! জখম ১৫, এলাকায় চাঞ্চল্য

সেই টাকা দিয়ে ছেলেকে উদ্ধার করলেও শেষ রক্ষা হল না। এদিন প্রথমে হরিশচন্দ্রপুর গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় প্রভাতকে। সেখান থেকে তাঁকে স্থানান্তরিত করা হয় চাঁচল সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে। সেখানেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে প্রভাব।

উল্লেখ্য, গত রবিবার সকালে মালদহের মঙ্গলবাড়ি এলাকায় এক ব্যক্তিকে ঘোরাফেরা করতে দেখেন স্থানীয়রা। কী কারণে ঘোরাফেরা করছেন, তা নিয়ে জেরা করা হয় ওই ব্যক্তিকে। আর তাতেই হতভম্ব হয়ে যান ওই ব্যক্তি। সঠিকভাবে উত্তর দিতে পারেননি তিনি। তাতেই সন্দেহ হয় সকলের। এলাকাবাসীরা ভাবতে শুরু করেন ওই ব্যক্তিই মোটর বাইক চোর। এরপরই বেধড়ক মারধর করা হয় তাঁকে। সপ্তাহান্তে সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি মালদহে।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

আরও পড়ুন ::

Back to top button