ত্রিপুরা

খোয়াই কাণ্ডে জোর ধাক্কা খেল বিপ্লব দেবের সরকার‍! আদালতের রায়ে স্বস্তিতে তৃণমূল

ত্রিপুরায় অভিষেকদের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলায় স্থগিতাদেশ

ব্যাকফুটে বিপ্লব দেব সরকার। ত্রিপুরা হাইকোর্টের রায়ে স্বস্তিতে অভিষেক ব্যানার্জি সহ পাঁচ তৃণমূল নেতা। তাঁদের বিরুদ্ধে খোয়াই থানায় দায়ের হওয়া মামলায় স্থগিতাদেশ দিল আদালত। বিচারপতি অখিল কুরেশির এই রায়ের ফলে ওই মামলায় পুলিশ আর তাঁদের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে পারবে না। পাঠানো যাবে না নোটিসও। এমনকি পুজো পর্যন্ত করা যাবে না জিজ্ঞাসাবাদও। এই রায়ে স্বস্তি পেলেন অভিষেক ব্যানার্জি, কুণাল ঘোষ, দোলা সেন, ব্রাত্য বসু এবং সুবল ভৌমিক।

যুব তৃণমূল নেতাদের গ্রেপ্তারির প্রতিবাদে খোয়াই থানায় পুলিশ আধিকারিকদের সঙ্গে রীতিমতো বচসায় জড়িয়ে পড়েন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক ব্যানার্জি। ধৃতদের মুক্তির দাবিতে খোয়াই থানায় অবস্থানে বসে পড়েন অভিষেক সহ একাধিক তৃণমূল নেতা-নেত্রী। তার জেরেই অভিষেক সহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের করে ত্রিপুরা পুলিশ। নোটিস পাঠিয়ে তৃণমূল নেতাদের ডেকে পাঠানো হচ্ছিল। এর বিরুদ্ধেই আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল তৃণমূল।

আরও পড়ুন : এবার তৃণমূলের পথে মেঘালয়ের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী! অভিষেকের সঙ্গে বৈঠক ঘিরে জল্পনা

এদিন তাদের তরফে আইনজীবী ছিলেন সিদ্ধার্থ লুথরা। বিচারপতি জানিয়েছেন, খোয়াই থানা মামলায় দুর্গাপুজোর পরে পরবর্তী শুনানি। ততদিন পর্যন্ত তৃণমূল নেতাদের জেরা করা যাবে না। এটা ঘটনা সেই ঘটনার প্রেক্ষিতেই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য খোয়াই থানায় তলব করা হয়েছিল অভিষেক, কুণাল ঘোষ সহ মোট পাঁচজনকে। পাঠানো হয় নোটিসও। কুণাল ঘোষ হাজিরাও দেন। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে অসুস্থও হয়ে পড়েন। বাকিরা হাজিরা দেওয়ার জন্য সময় চান। এর মাঝেই আদালতের রায়ে স্বস্তি পেলেন অভিষেকরা।

সূত্রঃ আজকাল

আরও পড়ুন ::

Back to top button