জাতীয়

রেকর্ড হারে কমছে সংক্রমণ, ১৯ হাজারে নামল দেশের দৈনিক সংক্রমণ

উৎসবের মরশুমে দেশের কোভিড (COVID-19) গ্রাফে আরও স্বস্তি। আরও খানিকটা নামল দেশের করোনা সংক্রমণ। কমছে অ্যাকটিভ কেসও। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের সাম্প্রতিকতম পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে করোনা ভাইরাসে (Coronavirus) আক্রান্ত হয়েছেন ১৯ হাজার ৭৪০জন। করোনার বলি ২৪৮ জন। বাড়ছে সুস্থতার হার। এই মুহূর্তে দেশে মহামারীর সঙ্গে লড়াই করেছে সুস্থতার হার ৯৭.৯৬ শতাংশ।

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশে কমছে অ্য়াকটিভ করোনা রোগীর সংখ্যা। এই মুহূ্র্ত তা দাঁড়িয়েছে ২ লক্ষ ৩৬ হাজার ৬৪৩এ, যা গত ২০৬ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন। এই পরিসংখ্যান বড়সড় স্বস্তিদায়ক বলে মনে করছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। এই মুহূর্তে দেশের মোট করোনাজয়ীর সংখ্যা গত মার্চ থেকে সর্বোচ্চ, এমনই হিসেব মিলছে সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান থেকে।

আরও পড়ুন : কলকাতায় জ্বালানির দামে নতুন রেকর্ড, জানুন কোথায় কত?

শুক্রবারও দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা ছিল ২১ হাজারের বেশি। আর শনিবার তা নেমে এল ১৯ হাজার ৭৪০এ। কমেছে মৃত্যুও। শুক্রবার যা ছিল ২৭১, শনিবার তা আড়াইশোরও কম – ২৪৮। সেইসঙ্গে কেরল, মহারাষ্ট্রের নিম্নমুখী সংক্রমণও স্বস্তি দিচ্ছে। করোনা বিরুদ্ধে জোরদার লড়াইয়ে বাড়ছে টিকাকরণের হারও।

এই মুহূর্তে দেশজুড়ে উৎসবের মরশুম। বিভিন্ন প্রান্ত মেতে উঠেছে নানা উৎসবে। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে, করোনার সতর্কতা অবলম্বন করে তবেই উৎসবে মেতে ওঠার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। বাড়তি জমায়েতে নিষেধাজ্ঞা জারি থাকছে। জোরকদমে চলছে টিকা (Corona vaccine) দেওয়ার কাজ। কেন্দ্রের লক্ষ্য, দশমীতে দেশের ১০০ কোটি মানুষকে ভ্যাকসিন দিয়ে নয়া রেকর্ড গড়া। তবে কলকাতা পুজোর চারদিন টিকাকরণ বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছে প্রশাসন।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

আরও পড়ুন ::

Back to top button