জাতীয়

টিকাকরণে ১০০ কোটির মাইলস্টোন ছোঁয়ার পরের দিনেই নিম্নমুখী সংক্রমণ, নিম্নমুখী অ্যাকটিভ কেসও

টিকাকরণে ১০০ কোটির মাইলস্টোন ছোঁয়ার পরের দিনেই নিম্নমুখী সংক্রমণ, নিম্নমুখী অ্যাকটিভ কেসও - West Bengal News 24

বৃহস্পতিবারই ১০০ কোটি দেশবাসীকে করোনা টিকা (Corona vaccine) দেওয়ার মাইলফলক ছুঁয়েছে ভারত। তার পরেরদিনই আরও নিম্নমুখী দেশের কোভিড (COVID-19) গ্রাফ। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের সাম্প্রতিকতম পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ১৫ হাজার ৭৮৬ জন। মৃত্যু হয়েছে ২৩১ জনের। কমেছে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যাও। এই মুহূর্তে তা ১ লক্ষ ৭৫ হাজারের কিছু বেশি। এই গ্রাফ কিছুটা স্বস্তিসূচক বলেই মনে করছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা ১ লক্ষ ৭৫ হাজার ৭৪৫ জন। যা আগের দিনের তুলনায় ৩০৮৬ কম। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৩ লক্ষ ২৪ হাজার ২৬৩ টি। এনিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্য়া প্রায় ৬০ কোটি।

আরও পড়ুন : ১০০ কোটি টিকাকরণ দেশের ইতিহাসে একটি নতুন অধ্যায়ের সূচনা: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

এই মুহূর্তে উপসর্গহীন করোনা রোগীদের চিহ্নিত করতে বেশি তৎপর কেন্দ্র। পরীক্ষার সংখ্যাও তাই বাড়ানো হচ্ছে। জোর দেওয়া হয়েছে অ্যান্টিজেন টেস্টে। বাংলা-সহ একাধিক রাজ্যে পাঠানো হয়েছে প্রচুর Rapid Antigen Test কিট। কারণ, আসন্ন শীতের মরশুম এবং তৃতীয় ঢেউ। তার আগে চিকিৎসকদের চিন্তা বাড়াচ্ছে উপসর্গহীন ব্যক্তিরা।

সংক্রমণ কমলেও শীর্ষে কেরল, তামিলনাড়ু, মহারাষ্ট্র-সহ মোট ৫টি রাজ্য। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ কেরলে। গত ২৪ ঘণ্টায় দক্ষিণের এই রাজ্যে ৮৭৩৩ জন আক্রান্ত, যা মোট সংক্রমণের ৫৫.৩২ শতাংশ। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে টিকাকরণ হয়েছে ৬১ লক্ষ ২৭ হাজার ২৭৭টি। যার জেরে বৃহস্পতিবার ১০০ কোটির গণ্ডি পেরনোর পর শুক্রবার মোট টিকাপ্রাপকের সংখ্যা দাঁড়াল ১০০ কোটি ৫৯ লক্ষ ৪ হাজার ৫৮০তে।

সবমিলিয়ে, করোনাযুদ্ধে ভারত বেশ এগিয়ে চলেছে। আর ১০০ কোটি টিকাকরণের রেকর্ড গড়ে বিশ্বের প্রশংসার মুখে দেশ। ফলে মহামারী করোনা ভাইরাস আর তেমন থাবা গেড়ে বসতে পারবে না বলেই আশা স্বাস্থ্যমহলের।

সুত্র : সংবাদ প্রতিদিন

আরও পড়ুন ::

Back to top button