ক্রিকেট

ভারতের বিরুদ্ধে শাহিনের মতো বোলিং করতে চাই : ট্রেন্ট বোল্ট

ভারতের (India) বিরুদ্ধে শাহিন আফ্রিদির (Shaheen Shah Afridi) দুরন্ত বোলিং নিয়ে এখনও চর্চা চলছে। ক্রিকেটমহল তো বটেই, যাঁরা বাইশ গজে নামছেন একের পর এক ম্যাচ খেলতে, তাঁরাও শাহিনের বোলিংয়ে মুগ্ধ। ভারতের বিরুদ্ধে এই রকম স্পেলই করতে চাইছেন ট্রেন্ট বোল্ট (Trent Boult)। যাতে বিরাট কোহলির টিমের টপ অর্ডার মুখ থুবড়ে পড়ে।

একে ১৮ বছর কিউয়িদের বিরুদ্ধে আইসিসির (ICC) কোনও টুর্নামেন্টে জেতেনি ভারত। ২০০৩ সালে যে রেকর্ড চলতে শুরু করেছিল, টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালেও তা বহাল রেখেছে নিউজিল্যান্ড। কেন উইলিয়ামসনের টিমের বিরুদ্ধে যা রেকর্ড, ভারতের বিরুদ্ধে পাকিস্তানেরও তেমনই ছিল। সেখান থেকে বেরিয়ে ভারত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে লাইফলাইন খুঁজছে। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে হারলে কিন্তু এই বিশ্বকাপে আরও চাপে পড়ে যাবেন বিরাটরা। আর তা যাতে হয়, সেই চেষ্টাই করছেন বোল্ট।

নিউজিল্যান্ডের বাঁ হাতি স্পিনার ম্যাচের আগের দিন বলেছেন, ‘শাহিন ভারতের বিরুদ্ধে অসাধারণ বোলিং করেছে। তবে এটাও মাথায় রাখতে হবে, ভারতের ব্যাটাররা কিন্তু বেশ ভালো। কোয়ালিটি ব্যাটার রয়েছে ওদের টিমে। আর তাই শুরুর দিকে উইকেট আমাদের দরকার। আশা করি কিছুটা সুইং পাব। শাহিন যেটা করেছে, সেটা করে দেখাতে চাই।’

আরও পড়ুন : টি২০ বিশ্বকাপের ফাইনালে মমতাকে আমন্ত্রণ সৌরভের, কী করবেন মুখ্যমন্ত্রী?

ভারত যেমন প্রথম ম্যাচে হেরেছে পাকিস্তানের কাছে, নিউজিল্যান্ডও তাই। রবিবারের ম্যাচ বিরাটদের কাছে যেমন, তেমনই গুরুত্বপূর্ণ বোল্টদের কাছেও। যে টিম হারবে, তারা অনেকটাই চাপে পড়ে যাবে। সেমিফাইনাল থেকে দূরে সরে যাবে। আর তাই বোল্টরা জেতার জন্য মরিয়া। ভার্চুয়াল প্রেস মিটে বোল্ট বলেছেনও, ‘টিম কিন্তু যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী।

ভারতের বিরুদ্ধে নামার জন্য মুখিয়ে রয়েছে। এটা ঠিক যে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচেই আমরা হেরেছি। যে কোনও টুর্নামেন্ট শুরু করার জন্য এটা আদর্শ ফল নয়। তার পরও বলব, ভারতের চ্যালেঞ্জ সামলানোর জন্য আমরা তৈরি।’

এই বিশ্বকাপে টস একটা গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাক্টর হয়ে যাচ্ছে প্রায় প্রতি ম্যাচে। টস জিতলে কী করবেন, এখনও ঠিক করেননি কেন উইলিয়ামসনরা। বোল্ট অবশ্য বলছেন, ‘ব্যাটিং বা ফিল্ডিং, যাই শুরুতে করি না কেন, আমাদের সেটা দারুণ ভাবে করতে হবে। ভারত এমন একটা টিম, যে কোনও মুহূর্তে ম্যাচের রং পাল্টে দিতে পারে। ওরা কোয়ালিটি টিম। যদি শুরুতে ফিল্ডিং করি, তা হলে বল হাতে ওদের যত দ্রুত শেষ করে দিতে হবে। আর যদি ব্যাটিং করি, তা হলে বড় একটা রান খাড়া করতে হবে।’

মার্টিং গাপ্টিলের চোট নিয়ে যতই সংশয় থাকুক, তিনি ভারতের বিরুদ্ধে খেলছেন। আমিরশাহিতে সন্ধের ম্যাচে যারা পরে ফিল্ডিং করছে, শিশির সমস্যায় পড়ছে তারা। বোল্ট বলেছেন, ‘শিশির একটা বড় ফ্যাক্টর। প্রথম ম্যাচে অবশ্য খুব বেশি শিশির পড়েনি। এই সমস্যা নিয়েই এগোতে হবে। তবে ক্রিকেটে যে বেসিক কাজগুলো একটা টিমের বিরুদ্ধে জেতার জন্য করতে হয়, সেটা আমরা করার জন্য তৈরি। একটা পরিকল্পনা নিয়ে নামব। বাকিটা পরিস্থিতি অনুযায়ী ঠিক হবে।’

সুত্র : টিভি ৯

আরও পড়ুন ::

Back to top button