অপরাধজাতীয়

মাতৃহীন নাবালিকা ছ’মাসের মধ্যে পুলিশ সহ ৪০০ জনের ধর্ষণের শিকার

কতটা বিকৃত মানসিকতা থাকলে এমন ঘটনা ঘটানো যায়! মহারাষ্ট্রের এক নাবালিকার যৌনতার শিকার হয়ে অসহায় অবস্থার কথা শুনলে যে কোনও কঠোর মানুষের চোখেও জল আসতে বাধ্য, ক্ষোভে ফেটে পড়বেন যে কোনও মানুষ। দেশে রিপোর্ট করা ভয়াবহ এবং তীব্রভাবে বেদনাদায়ক যৌন নিপীড়নের ঘটনার চূড়ান্ত নিদর্শন ঘটে গিয়েছে মহারাষ্ট্রের বীড জেলায়।

ছয় মাস ধরে একজন পুলিশ সহ ৪০০ জন বিভিন্ন লোকের দ্বারা ধর্ষণের পর সেখানে এক নাবালিকা গর্ভবতী হয়ে পড়ে। নিউজ ১৮ লোকমত (মারাঠি) আজ এই নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

আরও পড়ুন : মহারাষ্ট্রের এনকাউন্টারে খতম শীর্ষ মাওবাদী নেতা, মাথার দাম ছিল ৫০ লক্ষ!

জানা গিয়েছে মুম্বইয়ের কাছে থানে জেলার ডোম্বিভলি এলাকায় ৩৩ জন যুবকের দ্বারা এক নাবালিকাকে গণধর্ষণ করার কয়েক সপ্তাহ পরে খবরটি প্রকাশ্যে আসতেই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক ঝড়। গোটা দেশ জুড়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন মানুষ। জানা গিয়েছে, নাবালিকার মা প্রায় দুই বছর আগে মারা গিয়েছেন। তারপরে তার বাবা তাকে বিয়ে দিয়ে দেয়। কিন্তু শ্বশুরবাড়িতে এক বছরের বেশি থাকতে পারেনি সে। শ্বশুর ক্রমাগত তাকে হয়রানি করায় বাপের বাড়ি ফিরে আসে মেয়েটি। এর কিছুদিন পর সে আম্বেজোগাই শহরে চাকরি খুঁজতে যায়।

আম্বেজোগাইয়ে চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়ে দুই ব্যক্তি মেয়েটিকে যৌন নিপীড়নের শিকার বানায়। তারপর সেখানে একজন পুলিশ অফিসার সহ আরও কয়েকশ লোক নাবালিকা মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। সর্বমোট, ৪০০ জনের যৌন নির্যাতনের শিকার হয়ে গর্ভবতী হয়ে পড়ে মেয়েটি। বেঁচে যাওয়া মেয়েটি এখন দুই মাসের অন্তঃসত্ত্বা।

শিশু কল্যাণ কমিটি এখন ভ্রুণ গর্ভপাতের প্রক্রিয়া চালাচ্ছে। নাবালিকা মেয়েটির অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ একটি মামলা দায়ের করেছে। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত চারজনকে আটক করা হয়েছে। মামলাটি নিয়ে তদন্ত করছে পুলিশ।

সুত্র : প্রথম কলকাতা

আরও পড়ুন ::

Back to top button