জাতীয়

ওমিক্রন আতঙ্কে, বিদেশি পর্যটকদের কাছে দরজা বন্ধ হল এই রাজ্যের

ফের কোভিডের নয়া ভ্যারিয়েন্টে আতঙ্ক! ওমিক্রনের আতঙ্কে বুধবার থেকে নিজেদের রাজ্যে বিদেশি পর্যটকদের ঘোরার ক্ষেত্রে “না” নির্দেশিকা জারি করল সিকিম। বাংলা-সিকিম সীমান্ত রংপোতে বিশেষ তল্লাশি করে সিকিমের পর্যটন দপ্তর এবং পুলিশ।

এই মূহূর্তে হল্যান্ড, আমেরিকা, ইউক্রেন, বাংলাদেশ-সহ একাধিক দেশের পর্যটক রয়েছেন সিকিমে। নতুন করে বুধবার থেকে আর বিদেশি পর্যটক বেড়াতে যেতে পারবেন না সিকিমে।

: পরিসংখ্যান বিস্ফোরক, করোনার চিকিত্‍সার জন্য দেনায় ডুবে ভারতের অধিকাংশ মানুষ!

মূলত ওমিক্রনের প্রভাব ঠেকাতেই মঙ্গলবার এই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। সেইমতো সীমান্তে চলছে কড়া নজরদারি। তবে দেশীয় পর্যটকেরা অনায়াসেই বেড়াতে আসতে পারেন সিকিমে। সেক্ষেত্রে কোভিডের দুটো ডোজের সার্টিফিকেট অথবা আরটিপিসিআরের নেগেটিভ রিপোর্ট সঙ্গে রাখতে হবে পর্যটকদের। হোটেলের রিশেপশনে তা জমা করতে হবে।

আরও পড়ুন: ‘ফেসবুকে অখিলেশ যাদবের নামে ‘মানহানিকর’ পোস্ট

প্রতিনিয়ত হোটেলগুলোয় তল্লাশি চালাবে পর্যটন দপ্তরের কর্তারা। রংপো সীমান্তেও র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টের ব্যবস্থাও করেছে সিকিম সরকার। সিকিম পর্যটন দপ্তরের সহকারী ডিরেক্টর সুষমা প্রধান বলেন, ”একেই ছোট রাজ্য সিকিম।

তাই দ্রুত যাতে ওমিক্রন ছড়াতে না পারে সেজন্যেই এই পদক্ষেপ। রাজ্যজুড়েই নতুন করে কোভিড বিধিও চালু করা হয়েছে। মাস্ক এবং স্যানিটাইজেশন ব্যবহার বাধত্যামূলক করা হয়েছে সিকিমে। রাতে জারি থাকছে কড়া বিধিনিষেধ।”

সামনেই বড়দিনের ছুটি। সেইসঙ্গে ইংরেজি নববর্ষকে নতুন বছরকে স্বাগত জানানোর উত্‍সব। ভরা পর্যটনের মরসুমে বিদেশি পর্যটকদের সিকিম সফরে “না” নির্দেশিকা জারি হওয়ায় হতাশ পর্যটন ব্যবসায়ীরা। একেই কোভিডের দুই ঢেউয়ের জেরে পর্যটন ব্যবসায় বড় ক্ষতির মুখে পড়তে হয়েছে ব্যবসায়ীদের। এবারে কোভিডের নতুন ভ্যারিয়েন্টের হানা রুখতে নয়া নির্দেশিকা সিকিম সরকার জারি করায় আবারও পর্যটন ব্যবসা ক্ষতির মুখে পড়ার আশঙ্কা।

তবে দেশীয় পর্যটকদের ক্ষেত্রে এখনও পর্যন্ত কোনও নির্দেশিকা জারি না হওয়ায় কিছুটা স্বস্তি। সিকিম পর্যটন দফতরের সহকারী অধিকর্তা আরও জানান, প্রথম দফায় এ বার আজ থেকে নতুন নির্দেশিকা চালু করা হয়েছে। তা পালন করা হবে রাজ্যজুড়েই।

সুত্র: নিউজ ১৮ বাংলা

আরও পড়ুন ::

Back to top button