মডেলিং

জানুন ‘মিস ইউনিভার্স’ হারনাজের অজানা তথ্য

রোববার (১২ ডিসেম্বর) দিবাগত রাতে ইসরায়েলের এইলাটে বসেছিল ৭০তম মিস ইউনিভার্সের আসর। সেখানেই প্যারাগুয়ের নাদিয়া ফেরেইরা ও দক্ষিণ আফ্রিকার লালেলা এমএসওয়ানেকে পেছনে ফেলে সেরার মুকুট ছিনিয়ে নেন পাঞ্জাবের ২১ বছরের তরুণী হারনাজ।

হারনাজ চণ্ডীগড়ে মডেলিং ও অভিনয় করেন। বেশ কয়েকটি সুন্দরী প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হয়েছিলেন তিনি। ২০১৭ সালে মিস চণ্ডীগড় হওয়ার মধ্য দিয়ে এই অঙ্গনে তার যাত্রা শুরু হয়। ২০১৮ ও ২০১৯ সালে তিনি মিস ইন্ডিয়া পাঞ্জাব ও মিস ইন্ডিয়া প্রতিযোগিতার শীর্ষ ১২-তে অবস্থান করছিলেন। চলতি বছর মিস ডিভা ইউনিভার্স ইন্ডিয়া হয়েছিলেন তিনি।

দ্বিতীয় রানার আপ দক্ষিণ আফ্রিকার লালেলা এমএসওয়ানে, মিস ইউনিভার্স হারনাজ সান্ধু ও প্রথম রানার আপ প্যারাগুয়ের নাদিয়া

আরও পড়ুন : প্রেম করছেন গুরু-নোরা, গোয়ায় কাটাচ্ছেন একান্ত সময়!

শিখ পরিবারের মেয়ে হারনাজ। পারিবারিকভাবেই যোগব্যায়াম ও ফিটনেসের ব্যাপারে তার রয়েছে বিশেষ মনোযোগ।

অভিনয় ছাড়াও গান, নাচ, সাঁতার, ঘোড়ায় চড়া ও রান্নার কাজগুলোতে তার রয়েছে বিশেষ পারদর্শিতা। পাঞ্জাবি ও হিন্দি ছাড়াও ইংরেজি ভাষায় দক্ষ হারনাজ। মাতৃভাষায় কবিতা লিখতে ভালোবাসেন তিনি। তাকে এর আগে একটি মিউজিক ভিডিওতে দেখা গেছে। হারনাজ অভিনীত দুটি পাঞ্জাবি চলচ্চিত্র মুক্তি পাবে আগামী বছর।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মায়ের সঙ্গে ছবি পোস্ট করে হারনাজ লিখেছিলেন, ‘মা আমার স্বপ্নের নির্মাতা, সেই স্বপ্ন ছোঁয়ার অনুপ্রেরণাও তিনি।

হারনাজের বাবা গুরুচরণ সিং সান্ধু, অমৃত কৌর সান্ধু। হারনাজের জীবনের সবচেয়ে বড় অনুপ্রেরণা তার মা। দীর্ঘ পিতৃতান্ত্রিক প্রথা ভেঙে তার মা সংসারের হাল ধরেছিলেন। হয়েছিলেন একজন সফল গাইনি চিকিৎসক। হারনাজ এখন লোক প্রশাসনে স্নাতকোত্তরের ছাত্রী।

আরও পড়ুন ::

Back to top button