বিচিত্রতা

লকডাউনে কাজ হারিয়ে যৌনকর্মী হয়ে গিয়েছেন স্বামী,জানতে পেরে যা করলেন স্ত্রী!

লকডাউন (Lockdown) মানুষের জীবন জীবিকা কীভাবে পরিবর্তন করে দিয়েছে তা আশপাশে তাকালেই চোখে পড়ে। তবে বেঙ্গালুরুর (Bengaluru) এই যুবক যে ভাবে তাঁর পেশা বদলে ফেলেছেন, তেমনটা খুব বেশি সামনে আসেনি। বিপিও-তে কাজ করা এক যুবক লকডাউনের সময় কাজ হারিয়ে যৌনকর্মীর পেশা বেছে নেন। স্ত্রীর থেকে কিছুদিন লুকিয়ে রাখলেও অবশেষে ধরা পড়ে যান তিনি।

বছর সাতাশের ওই যুবক যে বিপিও-তে কাজ করতেন, সেখানে ক্যান্টিনে আলাপ হয় ওই মহিলার সঙ্গে। পরে তাঁরা ডেট করতে আরম্ভ করেন। বছর দুয়েক পর ২০১৯ সালে বিয়ে করেন। বেঙ্গালুরুতেই একটি বাড়িভাড়া নিয়ে থাকছিলেন দু’জনে। কিন্তু লকডাউনে কাজ হারায় ওই যুবক। কয়েক মাস ধরে বিভিন্ন চাকরি খুঁজতে থাকেন। অবশেষে তিনি পুরুষ যৌনকর্মী হিসাবে কাজ শুরু করেন। এবং স্ত্রীর কাছে গোটা বিষয়টি লুকিয়ে রাখেন।

আরও পড়ুন : এবার বিয়ে করতে আংটি বদল দুই নারী চিকিৎসকের, সম্মতি দিল পরিবারও!

ওই মহিলা জানিয়েছেন, তিনি লক্ষ্য করছিলেন স্বামী দীর্ঘক্ষণ মোবাইল বা ল্যাপটপে লগইন থাকছেন। এতক্ষণ কী করছেন? প্রশ্ন করলেও সঠিক কোনও উত্তর মিলত না। এমনকী নানা জায়গায় ওই যুবক ঘুরে বেড়াতেন। কোথায় যেতেন, কেন যেতেন তারও কোনও উত্তর দিতেন না। এরপর ওই মহিলা তাঁর ভাইকে দিয়ে ল্যাপটপের পাসওয়ার্ড ক্র্যাক করান। খুলে যায় গোপন ফোল্ডার। সেখানে, অচেনা মহিলারে সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পান স্বামীকে। প্রথমে বিষয়টি অস্বীকারের চেষ্টা করলেও পরে সব খুলে বলেন ওই যুবক।

এবার ওই যুবতী, পুলিশে মহিলাদের জন্য নির্দিষ্ট হেল্পলাইন নোম্বরে ফোন করেন। সেখান থেকে তাঁদের স্বামী-স্ত্রীর ডাক আসে। সেখানে গিয়ে সব বলেন তাঁরা। ওই যুবক বলেন কেন তিনি এই পেশা বেছেছেন। এবং এখন তাঁর এই কাজ বেশ ভাল লাগছে বলেও জানান। তবে তিনি স্ত্রীকেও ভীষণ ভালবাসেন। তাঁর সঙ্গে থাকতে চান বলেও জানিয়েছেন। কিন্তু মহিলা বিচ্ছেদের সিদ্ধান্তে অনড়ই থাকেন। শেষ পর্যন্ত তাঁরা দু’ জনেই বিচ্ছেদের সিদ্ধান্তে সায় দেন। দু’জনের সম্মতি নিয়ে মামলা শুরু হয়েছে।

সূত্র : নতুন সময়

আরও পড়ুন ::

Back to top button