বিচিত্রতা

‘স্মার্ট, সুন্দরী ও উচ্চশিক্ষিত’ স্ত্রীকে ফিরে পেতে পুলিশের দারস্থ যুবক

‘স্মার্ট, সুন্দরী ও উচ্চশিক্ষিত’ স্ত্রীকে ফিরে পেতে পুলিশের দারস্থ যুবক - West Bengal News 24

বিয়ের মাত্র তিনদিন পর স্বামীকে ছেড়ে চলে গেছেন স্ত্রী। উঠেছেন বাপের বাড়িতে। আর ফেরার নাম নেই। তাই স্ত্রীকে ফেরত পেতে রীতিমতো হাতে লেখা আবেদনপত্র নিয়ে পুলিশের দারস্থ হয়েছেন এক যুবক।

ওই যুবকের দাবি তিনি দেখতে তেমন সুন্দর নন। কিন্তু তার স্ত্রী দারুণ সুন্দরী। শুধু সুন্দরীই নন, তার স্ত্রী স্মার্ট ও উচ্চশিক্ষিত বলেও দাবি করেন ওই যুবক। এই কারণে স্ত্রী তার সঙ্গে সংসার করতে চান না বলে দাবি ওই যুবকের।

মধ্যপ্রদেশের ছতরপুর জেলায় এই ঘটনা ঘটে বলে আনন্দবাজার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নন্দু পাল নামে এক যুবক হাতে লেখা আবেদন পত্র নিয়ে পুলিশের কাছে আর্জি পেশ করে বলেন, স্যার আমার স্ত্রী খুবই সুন্দরী। কিন্তু ও আমার সঙ্গে থাকতে চায় না। বিয়ের পর ওকে ওর বাপেরবাড়িতে নিয়ে গিয়েছিলাম। আর ফেরেনি সেখান থেকে।

আরও পড়ুন :: যেভাবে রাতারাতি মডেল হলেন ৬০ বছরের দিনমজুর!

নন্দুর এর পরের কথা শুনে পুলিশ আরও তাজ্জব হয়ে যায়। নন্দু বলেন, স্যার, আমি তো বউয়ের মতো অত সুন্দর নই, তাই হয়তো আমার সঙ্গে সংসার করতে চাইছে না। কিন্তু ওকে আমি ফিরে পেতে চাই।

নন্দু বলেন, আমি দেখতে খারাপ ঠিকই, কিন্তু তাই বলে আমাকে ছেড়ে চলে যাবে?

গত বছরের ৩০ এপ্রিল পারিবারিকভাবেই নন্দুর সঙ্গে রিনা পালের বিয়ে হয়। বিয়ের পর মাত্র তিনদিন নন্দুর সঙ্গে ছিলেন রিনা। এর পর বাপের বাড়ি চলে যান তিনি।

নন্দুর অভিযোগ, বেশ কয়েক দিন কেটে যাওয়ার পর স্ত্রীকে যখন বাপেরবাড়ি থেকে আনতে যান, তখন তিনি স্বামীর কাছে ফিরে আসতে অস্বীকার করেন। শুধু তাই নয়, শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে একটি ঘরে আটকে রেখে মারধর করেন বলেও অভিযোগ করেন নন্দু।

এর পর স্ত্রীর সঙ্গে একাধিক বার দেখা করার চেষ্টা করেছেন নন্দু। কিন্তু তাকে দেখা করতে দেওয়া হয়নি । এর পরই আইনি রাস্তার সিদ্ধান্ত নেন নন্দু। স্ত্রীকে ফিরে পেতে ছতরপুর পুলিশ সুপারের কাছে হাজির হন নন্দু।

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button