আন্তর্জাতিক

পুতিনের সমর্থনে বিশাল র‌্যালি, ইউরোপের যেদেশে দেখা গেল ভিন্ন চিত্র

পুতিনের সমর্থনে বিশাল র‌্যালি, ইউরোপের যেদেশে দেখা গেল ভিন্ন চিত্র - West Bengal News 24

আজ শনিবার, ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক অভিযানের দশম দিন। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি স্থানীয় সময় ভোরে এই অভিযান শুরু হয়। বিগত নয় দিনে দেশটির বিভিন্ন শহর দখলে নিয়েছে রুশ বাহিনী।

পুতিনের এই অভিযানের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে আমেরিকা, ব্রিটেন ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সব দেশ ছাড়াও অন্যান্য অনেক রাষ্ট্র। এর মধ্যে অনেক রাষ্ট্র নানা ধরনের নিষেধাজ্ঞাও আরোপ করেছে রাশিয়ার ওপর।

তবে এর মধ্যেই ভিন্ন চিত্র দেখা গেল দক্ষিণ-পশ্চিম ইউরোপের দেশ সার্বিয়ায়। সেখানে ইউক্রেন যুদ্ধে পুতিনের সমর্থনে অনুষ্ঠিত হয়েছে বিশাল মিছিল ও র‌্যালি। সার্বিয়ার রাজধানী বেলগ্রেডে এই মিছিল ও র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। এতে অংশ নেয় কয়েক হাজার মানুষ।

আরও পড়ুন :: রাশিয়ার সঙ্গে যুদ্ধে জিততে পারে ইউক্রেন : ব্লিনকেন

র‌্যালিতে অংশ নিতে বেলগ্রেডে রুশ সম্রাট দ্বিতীয় নিকোলাসের স্মৃতিস্তম্ভের সামনে গিয়ে জড়ো হয় হাজার হাজার মানুষ। সেখানে প্রথমে রুশ ও সার্বিয়ান জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়। এ সময় র‌্যালিতে অংশগ্রহণকারীরা এদুটি দেশকে পরস্পর ভাই হিসেবে উল্লেখ করেন।

র‌্যালিতে রাশিয়ার পতাকা এবং রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের ছবিসহ প্ল্যাকার্ড বহন করেন বিক্ষোভকারীরা। তারা শহর প্রদক্ষিণ করে রুশ দূতাবাসের দিকে মিছিল নিয়ে যায়।

উল্লেখ্য, ইউক্রেনে অভিযান শুরুর প্রথম দিন রুশ প্রেসিডেন্ট দাবি করেন, পূর্ব ইউক্রেন তথা লুহানস্ক ও ডোনেটস্কের নাগরিকের সুরক্ষার জন্যই এই সামরিক অভিযান।

পরে ইউক্রেনের সঙ্গে আলোচনায় নিরাপত্তা স্বার্থ সংশ্লিষ্ট তিনটি শর্ত দেয় রাশিয়া। এগুলো হল- ক্রিমিয়ায় রাশিয়ার সার্বভৌমত্বের স্বীকৃতি প্রদান, ইউক্রেনকে নিরস্ত্রীকরণ ও নাৎসিবাদের প্রভাবমুক্ত করা এবং দেশটির নিরপেক্ষ অবস্থান (পশ্চিমাপ্রীতি কাটানো) নিশ্চিত করা।

তবে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির অভিযোগ, শুধু ক্ষেপণাস্ত্র বর্ষণ বা বিমানের শব্দ নয়, এই গর্জন আসলে সভ্যতা ধ্বংসের চেষ্টা, যার জন্য দায়ী থাকবে রাশিয়া।

সূত্র: বিবিসি

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button