ঝাড়গ্রাম

মাসতুতো দাদাকে অপহরণ করে খুনের অভিযোগে গ্রেফতার যুবক

স্বপ্নীল মজুমদার

মাসতুতো দাদাকে অপহরণ করে খুনের অভিযোগে গ্রেফতার যুবক - West Bengal News 24

ঝাড়গ্রাম: মাসতুতো দাদাকে অপহরণ করে খুনের অভিযোগে গ্রেফতার হলেন এক যুবক। জামবনি থানার হিজলি গ্রামের ঘটনা।

সুবোধ বেসরা (৪৩) নামে এক ব্যক্তিকে খুন করে ডু‌লুং নদীর চরে মাটিতে পুঁতে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তাঁর মাসতুতো ভাই লখীন্দর বেসরার বিরুদ্ধে। লখীন্দরের বাড়ি হিজলি গ্রামে।

শুক্রবার ঝাড়গ্রাম আদালতে অভিযুক্তকে তোলা হলে তদন্তের স্বার্থে তাকে সাতদিন পুলিশ হেপাজতে রাখার নির্দেশ দেন বিচারক। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রের খবর, সুবোধের বাড়ি ঝাড়খণ্ড রাজ্যের পূর্ব সিংভূম জেলার চাকুলিয়া থানার বাগডিহা গ্রামে। বাগডিহা গ্রামটি ঝাড়গ্রাম জেলার জামবনি থানা এলাকার লাগোয়।

মঙ্গলবার সাইকেলে সুবোধ তাঁর মাসতুতো ভাই লখীন্দরের বাড়িতে বেড়াতে এসেছিলেন। রাতে আর ফেরেননি। পরদিন বুধবার সকালে সুবোধের বাড়ির লোকজন তাঁকে ফোনে না পেয়ে লখীন্দরের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। লখীন্দর তাঁদের জানান, সুবোধ বাড়ি চলে গিয়েছেন। এরপরই বুধবার হিজলি গ্রামের কাছে জঙ্গল রাস্তায় সুবোধের সাইকেল ও তাঁর পরণের প্যান্ট পাওয়া যায়। তাই দেখে সুবোধের পরিবারের লোকজনের সন্দেহ হয়।

জামবনি থানায় অভিযোগ দায়ের করেন সুবোধের স্ত্রী পানমণি বেসরা। তদন্তে নামে পুলিশ। পুলিশ কুকুর নিয়ে এসে তল্লাশি চালানো হয়। পুলিশের সন্দেহ হওয়ায় বৃহস্পতিবার লখীন্দরকে গ্রেফতার করা হয়। জেরায় লখীন্দর স্বীকার করেন সুবোধকে খুন করে ডুলুং নদীর চরে পুঁতে দেওয়া হয়েছে। এরপর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পড়াডিহা এলাকার কাছে ডুলুং নদীর চর থেকে মাটিতে পোঁতা সুবোধের দেহটি উদ্ধার করে পুলিশ।

তবে কেন সুবোধকে খুন করা হয়েছে সেটা স্পষ্ট নয়। জেলা পুলিশ সুপার বিশ্বজিৎ ঘোষ বলেন, ‘‘খুনের কারণ জানতে অভিযুক্তকে পুলিশ হেপাজতে নিয়ে জেরা করা হচ্ছে। আরও কেউ ওই খুনের ঘটনায় জনিত কি-না সেটা জানারও চেষ্টা হচ্ছে।’’ তবে পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, টাকা-পয়সা সংক্রান্ত কোনও বিবাদের কারণে খুন হতে পারে। সব দিকই খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button