আন্তর্জাতিক

দেশ ছাড়তে গিয়ে বিমানবন্দরে আটকে গেলেন শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট

দেশ ছেড়ে যাওয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হলেন শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে (৭৪)। আজ মঙ্গলবার ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপির বরাতে এ তথ্য জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যম কলম্বো গেজেট।

সরকারি সূত্র উদ্ধৃত করে প্রতিবেদনে বলা হয়, গত সোমবার রাতে প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া এবং তার স্ত্রী কলম্বোর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পাশে একটি সামরিক ঘাঁটিতে ছিলেন। সেখান থেকেই আজ বিমানবন্দরে গিয়ে ভিআইপি স্যুইটে অপেক্ষা করেন। নিরাপত্তার জন্যই গোতাবায়াকে সেখানে রাখা হয়।

এরপর তার পাসপোর্টে সিল মারার জন্য অভিবাসন কর্মকর্তাদের ভিআইপি স্যুইটে যেতে বলা হয়। এ সময় অভিবাসন কর্মকর্তারা প্রেসিডেন্ট গোতাবায়ার পাসপোর্টে সিল মারতে অস্বীকৃতি জানান। তবে বর্তমানে প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া কোথায় আছেন, সে সম্পর্কে কোনো সুনির্দিষ্ট তথ্য পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন :: রাস্তায় চাকরি খুঁজে বেড়াচ্ছেন বরিস জনসন!

ধারণা করা হচ্ছে, আটক হওয়ার সম্ভাবনা এড়াতেই তিনি বিদেশে যেতে চেয়েছিলেন।

স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, গতকাল সোমবার পদত্যাগপত্রে সই করেছেন প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া। আগামীকাল বুধবার থেকে তার পদত্যাগ কার্যকর হবে। দেশটির স্পিকার মাহিন্দা ইয়াপা আবেবর্ধনে আগামীকাল জনসমক্ষে প্রেসিডেন্টের পদত্যাগপত্র জাতির কাছে ঘোষণা করবেন। প্রেসিডেন্টের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, শান্তিপূর্ণ ক্ষমতা হস্তান্তরের জন্য পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

এর আগে প্রেসিডেন্ট গোতাবায়ার ছোট ভাই ও দেশটির সাবেক অর্থমন্ত্রী বাসিল রাজাপাকসে গোপনে দেশ ছেড়ে দুবাই পালিয়ে যেতে চেয়েছিলেন। কিন্তু বিমানবন্দরে থাকা লোকজন তাকে চিনে ফেলেন এবং একদল বিক্ষোভকারী সঙ্গে সঙ্গেই বিমানবন্দর ঘেরাও করে অবস্থান নেন। এ পরিস্থিতিতে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ বাসিলকে বিদেশভ্রমণজনিত ক্লিয়ারেন্স দিতে অপারগতা জানায়। অবশেষে বিমানবন্দর ছেড়ে ফিরে যেতে হয় সাবেক অর্থমন্ত্রীকে।

আরও পড়ুন ::

Back to top button