পর্যটন

অসাধারণ এই মরূদ্যানগুলো একবার দেখলে প্রেমে পড়ে যাবেন আপনি!

অসাধারণ এই মরূদ্যানগুলো একবার দেখলে প্রেমে পড়ে যাবেন আপনি!

কখনো কি ভেবেছেন, বেড়াতে যাবেন মরুভূমিতে? মরুভূমি বলতেই ধু ধু বালি, প্রচন্ড উত্তাপ, কোথাও কোন জল নেই, বিশ্রামের জায়গা নেই। প্রকৃতির দয়ায় কোথাও হয়ত কয়েকটি গাছ আছে আর তার সাথেই জলের উৎস। সেখানেই কিছু সৌন্দর্য্যের দেখা পাওয়া, নইলে আর কি বা আছে মরুভূমিতে! মরুভূমির গাছের সমারোহ এই মরূদ্যান এক সৌন্দর্য্যের ভান্ডার, এর মাঝেও আছে রহস্য। আসুন জেনে নিই, কয়েকটি মরূদ্যানের কথা।

১। সেবা মরূদ্যান, লিবিয়া
দক্ষিণ-পশ্চিম লিবিয়ায় সাভা শহরের কাছে এর অবস্থান। বিশ্বের সবচেয়ে বড় মরুভূমি সাহারার বুকে শোভা বাড়াচ্ছে এই মরূদ্যান। লম্বা সবুজ পাম গাছগুলো সোনালী বালুর মাঝে শান্তির পরশ এনে দেয়। চোখকে আরাম দেয়। চারপাশে দিগন্তজোড়া বালুর চিত্রকর্ম। সেও এক অবাক করা দৃশ্য।

২। হুয়াকাচিনা, পেরু
দেখলে বিশ্বাস করা কঠিন যে, এটি শিল্পীর আঁকা কোন চিত্রকর্ম নয়। প্রকৃতির অনন্য সৃষ্টি, বিস্ময়কর খেয়াল এই মরূদ্যান একবার দেখলে আপনার কষ্টকর ভ্রমণ মূহূর্তে স্বার্থক বোধ হবে। মরূদ্যানকে ঘিরে থাকা চমৎকার তরঙ্গায়িত বালিয়াড়ি অভিভূত করবে আপনাকে। শীতল জলের উপহ্রদটি শান্তি এনে দেবে তীব্র উত্তপ্ত আবহাওয়াতেও। হুয়াকাচিনা একটি সবুজ গ্রাম, স্বাগত জানায় সব রকম পর্যটকদের।

৩। ক্রিসেন্ট লেক, চীনা
ধু ধু ধুসর বালিয়াড়ির মাঝে ছোট্ট লেক এটি। প্রাচীন প্রশান্ত লেকটি প্রসিদ্ধ সে সময়ের সিল্ক ব্যবসায়ীদের বিশ্রামের এলাকা হিসেবে। চীনের গোবি মালভূমির দুনহাং শহরের তীব্র রোদ থেকে বাঁচতে এখানে আশ্র্য় নিত তারা। এখানে চাইনিজ সুভেনির সংগ্রহ করতে পারবেন আপনি। ঘুরে বেড়াতে পারবেন উটের পিঠে। পূর্ণিমার রাতে এই লেকের রূপ পৃথিবীর সকল রূপকে হার মানায়।

৪। সেবিকা মরুদ্যান, তানিশিয়া
সুদূর আফ্রিকান দেশ তানিশিয়ার জেবেল এল নেগাব পর্বতের পাদদেশে এই মরুদ্যানের অবস্থান। এলাকাটিকে বলা হয়, ‘the castle of thae sun’। প্রাচীন রোমান সৈন্যরা জায়গাটিকে ব্যবহার করতেন আফ্রিকান আউটস্পট হিসেবে। ‘স্টার ওয়ার’ সিনেমার শ্যুটিং এ ব্যবহৃত হয় জায়গাটি। প্রচুর প্ররযটক বেড়াতে আসে এখানে।

৫। পিকা, চিলি
উত্তর চিলির আতাকামা মরুভূমির অভ্যন্তরে এই মরুদ্যানের অবস্থান। চমকপ্রদ এবং উতসবমূখর শহর পিকা গড়ে উঠেছে পিকা মরুভূমিকে ঘিরে। প্রশান্ত মহাসাগরের কুয়াশা মরুভূমির সবুজকে আরও রহস্যাবৃত করে। এলাকাটি চিলির ফ্লেমিঙ্গোদের আবাসস্থল। তাপমাত্রা মাত্রাতিরিক্ত। তাই সব মৌসুমে বেড়াতে যাওয়া ঝুকিপূর্ণ। চমৎকার শহরটিতে বেড়াতে আসুন বসন্তে।

৬। জুলগানাই মরূদ্যান, মঙ্গোলিয়া
গোবি মালভূমির যাদু শুধু চীনেই শেষ নয়। পার্শ্ববর্তী মঙ্গোলিয়াতেও আছে তার ছোঁয়া। দক্ষিণ মঙ্গোলিয়ায় অসাধারণ মরুদ্যান জুল্গানাই এর অবস্থান। এর পাশ দিয়ে বয়ে গেছে জুলগানাই নদী। নদীর উৎপত্তি আলটান পর্বত থেকে আর সমাপ্তি মরুভূমির বালিতে। বিরিল মিগ্রেটরি পাখির দেখা মিলবে এখানে। নদীর জলে পাহাড়ের প্রতিচ্ছবি এক অনন্য দৃশ্যের তৈরি করে, যা আপনাকে মুগ্ধ করতে বাধ্য।

আরও পড়ুন ::

Back to top button