বলিউড

সুস্মিতা কি ললিতের টাকায় বিক্রি হয়ে গেলেন? : তসলিমা নাসরিন

বলিউডের সাবেক বিশ্বসুন্দরী সুস্মিতা সেনের সঙ্গে প্রেম করছেন ভারত থেকে পলাতক ব্যবসায়ী টাইকুন ও আইপিএলের সাবেক চেয়ারম্যান ললিত মোদি। সম্প্রতি দুজনের ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের ছবি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করে এই ঘোষণা দেন ললিত। এও জানান, শিগগির নাকি তারা বিয়েও করবেন।

এই ঘোষণার পর থেকেই শুরু হয়েছে জোর চর্চা। বিনোদন দুনিয়ার চর্চার বিষয় হয়ে উঠেছেন ললিত ও সুস্মিতা। অনেকে মন্তব্য করেছেন, ললিত মোদির টাকার লোভে পড়েছেন বলিউড নায়িকা। এবার এই প্রেম নিয়ে মুখ খুলেছেন বাংলাদেশ থেকে বিতাড়িত বিতর্কিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন।

স্মৃতির পাতা থেকে সাবেক ‘মিস ইউনিভার্স’ সুস্মিতা সেনের সঙ্গে তার পরিচয়ের কথা জানিয়ে তসলিমা লিখেছেন, ‘সুস্মিতা সেনের সঙ্গে আমার একবারই দেখা হয়েছিল। অনেক বছর আগে, কলকাতা বিমান বন্দরে। আমাকে জড়িয়ে ধরে তিনি বলেছিলেন, ভালোবাসি। আমার চেয়েও দীর্ঘাঙ্গী খুব তো কেউ নেই এ অঞ্চলে, তাই তার পাশে দাঁড়িয়ে নিজেকে হঠাৎ বেঁটে বলে বোধ হয়েছিল। তার সৌন্দর্য থেকে মুগ্ধতার চোখ সহজে সরিয়ে নিতে পারিনি।’

তসলিমার কথায়, ‘আমার সবচেয়ে ভালো লাগতো সুস্মিতা সেনের ব্যক্তিত্ব। অল্প বয়সেই দুটি মেয়েকে দত্তক নিয়েছেন। ভালো লাগতো তার সততা, সাহসিকতা, সচেতনতা, স্বনির্ভরতা, ভালো লাগতো তার দৃঢ়তা, ঋজুতা।’

এর পরই সুস্মিতা-ললিত প্রেম নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তসলিমা। লিখেছেন, ‘নানা কিসিমের অপরাধে জড়িত অত্যন্ত অনাকর্ষণীয় এক লোকের সঙ্গে সুস্মিতা এখন সময় কাটাচ্ছেন। লোকটি প্রচণ্ড ধনী বলেই কি? তাহলে কি টাকার কাছে বিক্রি হয়ে গেলেন তিনি? হতে পারে তিনি প্রেমে পড়েছেন লোকটির। কিন্তু বিশ্বাস হতে চায় না যে তিনি প্রেমে পড়েছেন। টাকার প্রেমে যারা পড়েন, তাদের ওপর থেকে আমার খুব দ্রুতই শ্রদ্ধা চলে যায়।’

এদিকে ললিত মোদির সঙ্গে তার প্রেম নিয়ে চর্চার মাঝে শুক্রবার সোশ্যাল মিডিয়ায় দুই মেয়ের সঙ্গে সেলফি তুলে পোস্ট করেন সুস্মিতা। কোনো প্রসঙ্গ না টেনে কিছুটা হেঁয়ালি করে লেখেন, ‘আমি যেখানে আছি সুখে আছি। বিবাহিত নই, এখানে কোনো আংটির বিষয়ও নেই। শুধুই নিঃশর্ত ভালোবাসায় ঘেরা।’

ললিত প্রসঙ্গ না টানলেও তিনি যে সে বিষয়টি নিয়েই কথা বলেছেন তা স্পষ্ট। কারণ, সুস্মিতা লেখেন, ‘আমার মনে হয়ে এই মুহূর্তে এই ব্যাখ্যাটাই যথেষ্ঠ। এবার আমি নিজের জীবন ও কাজে ফিরতে চাই। আমার সঙ্গে যারা সুখ শেয়ার করেন তাদেরকে ধন্যবাদ এবং যারা করেন না তাদের না হয় বাদ দিলাম।’

আরও পড়ুন ::

Back to top button