জাতীয়

গুজরাটে বিষাক্ত মদপানে ২৮ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ৪৫

গুজরাটে বিষাক্ত মদপানে অন্তত ২৮ জন মারা গেছেন। এ ঘটনায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছেন আরও অনেকে।

বিষাক্ত মদপানে মৃতদের অধিকাংশই শ্রমিক বা দিনমজুর। বিষাক্ত মদপানে মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে কর্তৃপক্ষ। খবর এনডিটিভির।

বিষাক্ত মদপানের কারণে সোমবার ভারতের ওই রাজ্যে এ প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। এ ছাড়া, অসুস্থ হয়ে বোটাদ, ভাবনগর এবং আহমেদাবাদ হাসপাতালে ৪৫ জনেরও বেশি মানুষ চিকিৎসাধীন। অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মদ খাওয়ার ঘটনাটি ঘটে গুজরাটের আহমেদাবাদ ও বোটাদ জেলার বেশ কয়েকটি গ্রামে। এসব এলাকার বেশ কয়েকজনকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা গ্রামে নকল মদ বিক্রির সঙ্গে জড়িত বলে জানা গেছে।

গুজরাট পুলিশের মহাপরিচালক আশিষ ভাটিয়া গান্ধীনগরে সাংবাদিকদের বলেন, অত্যন্ত বিষাক্ত মিথাইল অ্যালকোহল থেকে এ মদ তৈরি করা হয়েছিল।

এ ঘটনার জেরে হত্যা এবং অন্যান্য অপরাধের অভিযোগে ১৪ জনের বিরুদ্ধে তিনটি ফার্স্ট ইনফরমেশন রিপোর্ট (এফআইআর) নথিভুক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন গুজরাট পুলিশের মহাপরিচালক।

আশিষ ভাটিয়া বলেন, ‘বিষাক্ত মদ খেয়ে এখন পর্যন্ত ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে ২২ জন বোটাদ জেলার বিভিন্ন গ্রামের এবং ছয় জন পার্শ্ববর্তী আহমেদাবাদ জেলার বাসিন্দা।’

আরও পড়ুন ::

Back to top button