আন্তর্জাতিক

মাঙ্কিপক্স: যৌন সঙ্গীর সংখ্যা কমানোর পরামর্শ ডব্লিউএইচওর

করোনা মহামারির পর বিশ্বজুড়ে এখন নতুন এক আতঙ্কের নাম ‘মাঙ্কিপক্স’। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মাঙ্কিপক্সের সংক্রমণকে একটি ‘সতর্কবার্তা’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

এদিকে এক গবেষণায় দেখা গেছে, মাঙ্কিপক্সের ৯৫ শতাংশ সংক্রমণের ঘটনা যৌন ক্রিয়াকলাপের মাধ্যমে হয়। খবর এএফপির।

মাঙ্কিপক্স আক্রান্তদের মধ্যে ৯৮ শতাংশ পুরুষদের ক্ষেত্রে দেখা গেছে যে তারা অন্য পুরুষদের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করে। তাই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) প্রধান তেদরোস আধানোম গেব্রেয়াসুস যৌন সঙ্গীর সংখ্যা কমানোর পরামর্শ দিয়েছেন। তবে তিনি ওইসব মানুষের প্রতি কোনও বৈষম্য না করার গুরুত্বের ওপর জোর দিয়ে বলেন, সব রকম কলঙ্কলেপন বা ঘৃণা যে কোনও ভাইরাসের মতোই বিপজ্জনক হতে পারে এবং প্রাদুর্ভাবকে আরও উস্কে দিতে পারে।

বুধবার (২৭ জুলাই) মাঙ্কিপক্স নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। খবর: আল-জাজিরার।

তবে, মাঙ্কিপক্স যৌনবাহিত সংক্রমণ নয়। কিন্তু তা ঘনিষ্ঠ শারীরিক সংসর্গের মাধ্যমে হতে পারে। গবেষণা এই ইঙ্গিত দেয় যে এখন পর্যন্ত মাঙ্কিপক্সের সংক্রমণের বেশির ভাগ ঘটনা যৌন ক্রিয়াকলাপের সঙ্গে সম্পর্কিত। প্রধানত পুরুষের সঙ্গে পুরুষের যৌন সম্পর্ক স্থাপনকারী ব্যক্তিদের মধ্যে এমনটা হয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, বিশ্বের ৭৮টি দেশে ১৮ হাজারের বেশি লোকের মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত হবার খবর পাওয়া গেছে। আক্রান্তদের মধ্যে ৭০ শতাংশ ইউরোপে এবং ২৫ শতাংশ আমেরিকায় বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। গত মে মাস থেকে এখন পর্যন্ত মাঙ্কিপক্স আক্রান্ত পাঁচজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে এবং আক্রান্তদের মধ্যে প্রায় ১০ শতাংশ ব্যথা নিয়ন্ত্রণের জন্য হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

ডাব্লিউএইচও গত সপ্তাহে মাঙ্কিপক্সকে বিশ্বব্যাপী জরুরি স্বাস্থ্য সতর্কতা জারি করে। আন্তর্জাতিক এই স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, যৌন যোগাযোগ, চুম্বন, নিবিড় আলিঙ্গন, দূষিত পোশাক, তোয়ালে এবং বিছানার চাদরের মাধ্যমে একজন থেকে অন্য জনের শরীরে মাঙ্কিপক্স ছড়িয়ে পড়তে পারে।

যারা মাঙ্কিপক্সে আক্রান্তদের সংস্পর্শে এসেছে এবং যাদের উচ্চ ঝুঁকি রয়েছে, যেমন স্বাস্থ্যসেবা কর্মী, পরীক্ষাগার কর্মী এবং একাধিক যৌন সঙ্গী আছে এমন ব্যক্তিদের টিকা দেওয়ার সুপারিশ দিয়েছে ডাব্লিউএইচও। তবে সংস্থাটি এই সময়ে গণ টিকা দেওয়ার পরিকল্পনার বিরুদ্ধে।

এমভিএ-বিএন নামে পরিচিত গুটিবসন্তের ভ্যাকসিন কানাডা, ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং যুক্তরাষ্ট্রে মাঙ্কিপক্সের বিরুদ্ধে ব্যবহারের জন্য অনুমোদিত হয়েছে। তা সত্ত্বেও, ডাব্লিউএইচও’র এখনও ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা সম্পর্কে যথেষ্ট তথ্য-উপাত্তের অভাব রয়েছে, তাই সমস্ত দেশকে তাদের ডেটা ভাগ করার জন্য ভ্যাকসিন ব্যবহার করার আহ্বান জানিয়েছে।

আরও পড়ুন ::

Back to top button