আন্তর্জাতিক

একদিনে ৩ নারীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করল ইরান

ইরানে চলতি সপ্তাহে একদিনেই তিনজন নারীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হয়েছে। একটি মানবাধিকার সংস্থা জানিয়েছে, ওই তিন নারীই তাদের স্বামীকে হত্যায় অভিযুক্ত হয়েছেন। খবর এএফপির।

নরওয়েভিত্তিক ইরান হিউম্যান রাইটস (আইএইচআর) জানিয়েছে, গত ২৭ জুলাই তিন নারীকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে। চলতি বছর এ নিয়ে কমপক্ষে ১০ নারীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে ইরান।

এদিকে ইরানে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়া নারীদের ক্রমবর্ধমান সংখ্যা নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছে। মানবাধিকার কর্মীরা বলছেন, স্বামীকে হত্যা করা অনেক নারীই নির্যাতনের শিকার হয়েছেন বা তাদের অনেক কম বয়সে বিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, তেহরানের বাইরের একটি কারাগারে সেনোবার জালালি নামের এক আফগান নারীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে।

অপরদিকে সোহেইলা আবেদি নামের এক নারীকে পশ্চিম ইরানের সানান্দাজ শহরের একটি কারাগারে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। ১৫ বছর বয়সে ওই নারীকে বিয়ে দেওয়া হয়।

বিয়ের ১০ বছরের মাথায় তিনি তার স্বামীকে হত্যা করেন। ২০১৫ সালে তিনি ওই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় অভিযুক্ত হন।

এদিকে ফারানাক বেহেশতি নামের অপর এক নারী পাঁচ বছর আগে তার স্বামীকে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত হন। উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় উরমিয়া শহরে তার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে।

মানবাধিকার কর্মীরা বলছেন, ইরানের আইন নারীদের পক্ষে কাজ করছে না। কারণ দেশটিতে নারীদের বিবাহ-বিচ্ছেদের অধিকার নেই। এমনকি পারিবারিক সহিংসতা বা নির্যাতনের শিকার হলেও তারা সংসার করে যেতে বাধ্য হন।

গত বছর আইএইচআর জানায় যে, ২০১০ সালে থেকে ২০২১ সালের অক্টোবর পর্যন্ত ইরানে কমপক্ষে ১৬৪ নারীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। সংস্থাটি জানিয়েছে, চলতি বছর ইরানে কমপক্ষে ৩০৬ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে।

আরও পড়ুন ::

Back to top button