হাওড়া

আরপিএফের তৎপরতায় ভেস্তে গেল হাওয়ালা চক্র, হাওড়া স্টেশন থেকে উদ্ধার নগদ ৩৫ লক্ষ টাকা

বান্ডিল বান্ডিল নোট উদ্ধারের পালা চলছে রাজ্যে। তৃণমূলের প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বান্ধবীর বাড়ি কিংবা ঝাড়খণ্ডের বিধায়কদের গাড়ি থেকে টাকা উদ্ধারের ঘটনায় রাজ্যবাসীর বিস্ময়ের ঘোর এখনও কাটেনি৷ এর মধ্যে বুধবার হাওড়া স্টেশন থেকে উদ্ধার হল বিপুল অঙ্কের টাকা৷ আরপিএফ এবং হাওড়া পুলিসের যৌথ অভিযানে ধরা পড়ে ওই টাকা।

এই ঘটনায় এক ব্যক্তিকে আটক করেছে রেল পুলিস৷ তাঁর নাম রাজকুমার সোনি (৫২)৷ তাঁর কাছ থেকে প্রায় ৩৫ লক্ষ টাকা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে৷ অনুমান, ওই টাকার সঙ্গে হাওয়ালার যোগ রয়েছে৷ অভিযুক্তকে জেরা করে ওই টাকার উৎস জানার চেষ্টা করছে পুলিস৷

এদিন চম্বল এক্সপ্রেসে হাওড়া স্টেশনে নামে রাজকুমার৷ পুলিসের কাছে আগেই খবর ছিল, ব্যাগ ভর্তি টাকা নিয়ে এক ব্যক্তি নামতে চলেছে হাওড়া স্টেশনে৷ সেই মতো ওত পেতে থাকে যৌথ বাহিনী৷ ট্রেন থেকে নামতেই ২২ নম্বর প্ল্যাটফর্মে রাজকুমারকে আটক করে পুলিস৷ তাঁকে নিয়ে রেল পুলিস স্টেশনে নিয়ে যাওয়া হয়৷ সেখানে ওই ব্যক্তির কাছ থেকে উদ্ধার হয় ৩৫ লক্ষ টাকা৷ এছাড়া হিরে, সোনা এবং রুপোর গয়নাও পাওয়া যায়৷ পুলিস জানিয়েছে, রাজকুমারের বাড়ি মধ্যপ্রদেশের জবলপুরে৷ এত টাকা তাঁর কাছে কী করে এল তা জানতে চায় পুলিস৷ কিন্তু অভিযুক্ত কোনও সন্তোষজনক উত্তর দিতে পারেননি৷

জানা গিয়েছে, বিপুল টাকা উদ্ধারের খবর দেওয়া হয় আয়কর দফতরকে৷ ওই টাকা আয়কর দফতরের আধিকারিকদের হাতে তুলে দেওয়া হয়৷ অনুমান, হাওয়ালার মাধ্যমে ওই টাকা পাচার করা হচ্ছিল৷ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক রাজকুমারকে নিজেদের হেফাজতে নেয় আয়কর দফতর৷

সূত্র: কলকাতা টিভি

আরও পড়ুন ::

Back to top button