বিচিত্রতা

লাইভ সংবাদে মাছি গিলে ফেললেন সাংবাদিক

একটি গুরুত্বপূর্ণ নিউজ কভারেজের সময় আচমকা গলায় মাছি ঢুকে গেল। তখন ওই সাংবাদিকের কী করা উচিত? অবলীলায় গিলে ফেলেছেন কানাডার একটি সংবাদমাধ্যমের হোস্ট! ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করার পরপরই ভাইরাল হয়ে গেছে।

টরন্টো-ভিত্তিক সাংবাদিক ফারাহ নাসের। কানাডার গ্লোবাল নিউজের হোস্ট তিনি। লাইভে মাছি গিলে ফেলার ভিডিওটি টুইটারে শেয়ার করে ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘শেয়ার করছি, কারণ আজকাল আমাদের সবার একটু হাসির দরকার! আমি আজ একটা মাছি গিলেছি!’ ভিডিওটি এরই মধ্যে প্রায় এক লাখ বার দেখা হয়েছে, লাইক পড়েছে দেড় হাজারের বেশি।

সরাসরি সম্প্রচারের সময় ফারাহ নাসের পাকিস্তানে বন্যার কথা বলছিলেন। তিনি বলছিলেন, ‘আমি যে গল্পটি উপস্থাপন করছি সেটি একটি উন্নত বিশ্বের সমস্যা।’ ঠিক এরপরই তাঁকে ভ্রুকুটি করতে দেখা যায়। এরপর একটু গলা পরিষ্কার করেই উপস্থাপনায় এমনভাবে ফিরেন যেন কিছুই হয়নি!

দর্শকদের উদ্দেশ করে ফারাহ বলেন, ‘পাকিস্তান কখনো এমন দীর্ঘ সময় ধরে ভারী বর্ষণ দেখেনি। আট সপ্তাহের অবিরাম মুষলধারে বৃষ্টি। জাতীয় জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।’ ‘ইনভোকড’ শব্দটি বলার সময় তিনি সংক্ষিপ্ত বিরতি নেন।

টুইটারে ভিডিওটি শেয়ার হওয়ার পর নেটিজেনরা বলছেন, ফারাহ নাসের একজন পেশাদার সাংবাদিকদের মতোই লাইভ চালিয়ে গেছেন। একজন টুইটার ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘আপনার কভারেজের সময় আমি বুঝতে পারছিলাম কিছু একটা সমস্যা হচ্ছে। কিন্তু সেটা যে একটা পোকার কারণে এটা আমি ধারণাই করতে পারিনি। আপনি বিষয়টি একজন পেশাদারের মতো হ্যান্ডেল করেছেন।’ অপর একজন ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘এবং আপনার উপস্থাপনার মধ্যে মাছির কোনো চিহ্নই ছিল না!’

এই ঘটনা নিয়ে ফারাহ কানাডার জনপ্রিয় বিনোদন প্রোগ্রাম ইটি কানাডাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘আমি খুবই আনন্দিত যে এটি মানুষকে হাসিয়েছে! দর্শক এবং সহকর্মীরা আমার প্রশংসা করেছেন। তবে আমি নিশ্চিত, এমন পরিস্থিতিতে তাঁরাও একই কাজ করতেন। কথা হলো, নিউজটা চালিয়ে নিতেই হবে।’

আরও পড়ুন ::

Back to top button