জাতীয়

সি- প্লেন থেকে কেমন লাগছে ‘স্ট্যাচু অফ ইউনিটি’? দেখুন ভিডিও

সি- প্লেন থেকে কেমন লাগছে 'স্ট্যাচু অফ ইউনিটি'? দেখুন ভিডিও
স্ট্যাচু অফ ইউনিটি

শনিবারই আনুষ্ঠানিক ভাবে ভারতে শুরু হয়ে গেল সি-প্লেন পরিষেবা। আহমেদাবাদ থেকে কেভাডিয়ার সর্দার বল্লভ ভাই পটেলের স্ট্যাচু অফ ইউনিটি পর্যন্ত চলবে এই সি প্লেন। প্রথম যাত্রী হিসেবে প্লেনে সফর করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। কেভাডিয়া থেকে সি- প্লেনে আহমেদাবাদ আসেন তিনি।

স্পাইস জেট-এর অধীনস্থ স্পাইস শাটল এই পরিষেবা দেবে। নর্মদা জেলার কেভাডিয়াতে স্ট্যাচু অফ ইউনিটি-তে পর্যটকদের পৌঁছে দেওয়াই এই সি-প্লেন পরিষেবার মূল উদ্দেশ্য। আকাশ থেকে নর্মদা নদীর পাশে বিশ্বের উচ্চতম মূর্তি এবং তার চারপাশের দৃশ্য দেখতে দেখতে নেমে আসার অভিজ্ঞতাই সম্পূর্ণ অন্যরকম হবে বলে দাবি করা হচ্ছে। এই সি-প্লেন পরিষেবাই এক ধাক্কায় স্ট্যাচু অফ ইউনিটি এবং গুজরাতের পর্যটনের আকর্ষণ অনেকটাই বাড়িয়ে দেবে বলে মত ওয়াকিবহল মহলের।

সি-প্লেন যখন স্ট্যাচু অফ ইউনিটি-র উপর দিয়ে ধীরে ধীরে সর্দার সরোবর বাঁধের জলে নেমে আসবে, তখন আকাশ থেকে স্ট্যাচু অফ ইউনিটি এবং তার চারপাশের দৃশ্য দেখতে কেমন লাগবে তার একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে স্পাইস শাটল সংস্থা।

আরও পড়ুন: ‘‌পুলওয়ামা হামলায় সবাই যখন শোকার্ত, তখনও রাজনীতি করেছিল বিরোধীরা’‌: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি

দেশের প্রত্যন্ত এলাকাগুলিতে বিমান পরিষেবা পৌঁছে দিতে এবং সস্তায় সাধারণ মানুষকে বিমানে চড়ার সুযোগ করে দিতে কেন্দ্রীয় সরকার যে উড়ান পরিষেবা শুরু করেছে, তারই অধীনে এই সি প্লেন পরিষেবা দেবে স্পাইস শাটল। ফলে সি-প্লেনের ভাড়াও থাকছে আম জনতার নাগালের মধ্যেই।

এই সি-প্লেনের টিকিট শুরু হচ্ছে মাত্র ১৫০০ টাকা থেকে। কিন্তু চাহিদা অনুযায়ী তা কিছুটা বাড়বে। টিকিট বুকিং শুরু হতেই বিপুুল টিকিটের চাহিদা দেখা গিয়েছে। spiceshuttle.com ওয়েবসাইটে গিয়ে সি- প্লেনের টিকিট বুক করা যাবে।

আহমেদাবাদ থেকে কেভাডিয়া পর্যন্ত ২০০ কিলোমিটার আকাশপথে পাড়ি দিতে ৪৫ মিনিট মতো সময় নেবে এই সি-প্লেন। কেভাডিয়া থেকে আহমেদাবাদ পর্যন্ত দিনে চারটি করে উড়ান থাকছে। আহমেদাবাদের সবরমতী নদী থেকে উড়ে কেভাডিয়ার সর্দার সরোবর বাঁধের জলে অবতরণ করবে এই সি-প্লেন।

উড়ান প্রকল্পের অধীনে দেশের অন্যান্য প্রান্তেও সি-প্লেন পরিষেবা শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে কেন্দ্রের। দেশে মোট ১৬টি রুট সি-প্লেন চালানোর জন্য চিহ্নিত করা হয়েছে। গুজরাত ছাড়াও উত্তরাখণ্ড, আন্দামান এবং অসমের গুয়াহাটিতে এই পরিষেবা শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে।

 

সূত্র: নিউজ ১৮

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button