রাজ্য

রাজ্যে বাড়ছে সুস্থতার হার

রাজ্যে বাড়ছে সুস্থতার হার
প্রতিকি ছবি

রাজ্যে করোনায় সুস্থতার হার ৮৮.‌৫৯ শতাংশ। সোমবার স্বাস্থ্য দপ্তরের বুলেটিন অনুযায়ী রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৯৫৭ জন। মোট আক্রান্তের সংখ্যা রাজ্যে এখনও পর্যন্ত ৩ লক্ষ ৮১ হাজার ৬০৮। এদিন করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৮৫ জন।

মোট সুস্থ হওয়ার সংখ্যা ৩ লক্ষ ৩৮ হাজার ৭৫। এদিন মৃত্যু হয়েছে ৫৭ জনের। রাজ্যে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৬ হাজার ৯৫৭। বর্তমানে সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩৬ হাজার ৫৭৬। এদিন একদিনেই কলকাতায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৮৮২, উত্তর ২৪ পরগনায় ৮৭৬, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ২৩৮, হাওড়ায় ২০২ জন।

এদিকে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে অধিকাংশ চিকিত্‍সক, নার্স করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। করোনা পরিষেবা সামলাতে গিয়ে অনেকেই গত কয়েকদিনে আক্রান্ত হয়েছেন। পরিষেবা যাতে বিঘ্নিত না হয় সেদিকে নজর রাখছেন কর্তৃপক্ষ।

হাসপাতালের সুপার ডাঃ ইন্দ্রনীল বিশ্বাস জানিয়েছেন, অনেকেই আক্রান্ত হয়ে কোয়ারেন্টিনে যাচ্ছেন। আবার সুস্থ হয়ে কাজেও যোগ দিচ্ছেন। আমরা ঘুরিয়ে-‌ফিরিয়ে রোস্টার করছি যাতে সমস্যা না হয়।

আরও পড়ুন: বুধবার দিল্লি থেকে রাজ্যে আসছেন অমিত শাহ

হোম আইসোলেশনে থাকা কোভিড রোগীকে কীভাবে সামলাতে হবে, কী কী মেনে চলতে হবে তার বিস্তারিত গাইডলাইন প্রকাশ করেছে স্বাস্থ্য দপ্তর। অধ্যাপক বিভূতি সাহা, জ্যোর্তিময় পাল ও সৌমিত্র ঘোষ মিলে এই গাইডলাইন তৈরি করেছেন। চিকিত্‍সা সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য তাতে রয়েছে।

ক্লিনিক্যালি কী কী উপসর্গ নজরে রাখতে হবে, কখন টেস্ট করাতে হবে, কাদের টেস্টের প্রয়োজন, কোন পদ্ধতিতে টেস্ট প্রয়োজন, রিস্ক ফ্যাক্টর কী কী, সেফ হোমে থাকার মাপকাঠি কী, হোম আইসোলেশনে থাকলে কী কী পরীক্ষা করাতে হবে, কী ওষুধ খাবে ইত্যাদি বিষয়-‌সহ আরও একগুচ্ছ তথ্য সংবলিত ৬২ পাতার বিস্তারিত গাইডলাইন প্রকাশ করেছে স্বাস্থ্য দপ্তর।

অন্যদিকে হোম আইসোলেশনে থাকা রোগীদের পরিচর্যায় স্থানীয় চিকিত্‍সক ও ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের (‌আইএমএ)‌ সদস্যদের কীভাবে কাজ করতে হবে তারও গাইডলাইন প্রকাশ করল স্বাস্থ্য দপ্তর। স্থানীয় চিকিত্‍সকদের কী করণীয়, কী প্রোটোকল মানতে হবে, স্থানীয় প্রশাসনের ভূমিকা কী হবে, তা বিস্তারিত জানানো হয়েছে।

 

 

সূত্র: আজকাল.in

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button