রাজ্য

আজ প্রবল বর্ষণে ভাসতে চলেছে কোন কোন জেলা? রিপোর্ট দিল হাওয়া অফিস

west bengal weather forecast : আজ প্রবল বর্ষণে ভাসতে চলেছে কোন কোন জেলা? রিপোর্ট দিল হাওয়া অফিস - West Bengal News 24

বৃহস্পতিবার রাত থেকেই শুরু হয়েছিল বৃষ্টি। শুক্র সকালে সেই বৃষ্টি না ঝরলেও কলকাতার আকাশ রয়েছে মেঘলা হয়েই। মাঝে মধ্যে রোদের দেখা মিললেও তাতে মেলেনি তেজ। আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়ে দিয়েছে, এদিন কলকাতা তো বটেই দক্ষিনবঙ্গ জুড়েই চলবে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি।

ভারী বৃষ্টি হবে পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, পশ্চিম বর্ধমানে। তবে সব থেকে বেশি বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকছে উত্তরবঙ্গে। কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি, দার্জিলিং ও কালিম্পং জেলায় অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে শুক্রবার। দুই দিনাজপুর ও মালদা জেলায় মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

দিল্লির মৌসম ভবন এদিন জানিয়েছে, বঙ্গোপসাগরে ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হচ্ছে। আর তার জেরেই বাংলার পরিমণ্ডকে হু হু করে ঢুকছে জলীয় বাষ্প। আর তার হেরেই উত্তরবঙ্গে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা যেমন থাকছে তেমনি দক্ষিনবঙ্গের বুকে কলকাতা সহ দুই ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলি, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়া, দুই বর্ধমান, বীরভূম, মুর্শিদাবাদ এবং নদিয়ায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে। তবে পুরুলিয়া, বাঁকুড়া আর পশ্চিম বর্ধমানে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ বেশি হবে।

আরো পড়ুন : দিলীপ ঘোষের মন্তব্যের প্রতিবাদে শান্তিপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করল তৃণমূল ছাত্র পরিষদ

আগামী ৩১ অগাস্ট পর্যন্ত এরকমই থাকবে দক্ষিণবঙ্গের আবহাওয়া। তবে ১ সেপ্টেম্বর থেকে কিছুটা হলেও বদল আসবে দক্ষিণবঙ্গের আবহাওয়ায়। পুজো যত এগোবে ততই দক্ষিনবঙ্গে বৃষ্টির পরিমাণ কমবে। তবে পুজোর মুখে বঙ্গোপসাগরে ঘূর্ণীঝড় তৈরির সম্ভাবনা থাকছে। তবে তা যে বাংলার দিকেই আসবে তা এত আগে জোর গলায় বলা সম্ভব নয়। তবে সাধারনত পুজোর আগে পরে করে বঙ্গোপসাগরে ঘূর্ণীঝড় দানা বাঁধলে তা বাংলার দিকেই আসার সম্ভাবনা থেকে যায়।

উত্তরবঙ্গে গতকাল থেকেই ভারী বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় পুন্ডিবাড়িতে ১৬ সেন্টিমিটার, মাথাভাঙ্গা এবং বারোভিসায় ১৫ সেন্টিমিটার, কুমারগ্রামে ১৪ সেন্টিমিটার, চিপানে ১৩ সেন্টিমিটার, দার্জিলিং এবং আলিপুরদুয়ারে ১১ সেন্টিমিটার, নেওড়ায় ৯ সেন্টিমিটার, শিলিগুড়ি এবং নাগরাকাটায় ৮ সেন্টিমিটার, বাগড়াকোট এবং সোরেঙে ৭ সেন্টিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে।

আরও পড়ুন : দল বিরোধী কাজের অভিযোগে দুই বিজেপি নেতৃত্ব বহিষ্কার

এদিনও দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার এবং কোচবিহারে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তাই ওই জেলাগুলিতে কমলা সতর্কতা জারি করা হয়েছে। মালদা এবং দুই দিনাজপুরে ভারী বৃষ্টি হতে পারে বলে ওই তিন জেলায় হলুদ সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

শনিবারও দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, মালদা জেলায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। ফলে ফের পাহাড়ি নদীগুলির জলস্তর বাড়বে। অপেক্ষাকৃত কম উঁচু জায়গাগুলিতে জল জমতে আরম্ভ করেছে ইতিমধ্যেই। সর্বোপরি দার্জিলিং এবং কালিম্পঙে ধস নামার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

সূত্র : এই মুহুর্তে

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button