বলিউড

চুম্বন দৃশ্যে আপত্তি, আদিত্য চোপড়াকে ফিরিয়ে দেন অমৃতা

Amrita Rao: চুম্বন দৃশ্যে আপত্তি, আদিত্য চোপড়াকে ফিরিয়ে দেন অমৃতা - West Bengal News 24

বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী অমৃতা রাও। আর জে আনমলের সঙ্গে দীর্ঘ সাত বছর প্রেম করার পর ২০১৬ সালে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হোন তিনি। এরপর সিনেমা থেকে নিজেকে অনেকটাই গুটিয়ে নেন এই অভিনেত্রী। সর্বশেষ ২০১৯ সালে ‘ঠাঁকরে’ সিনেমায় দেখা গেছে তাঁকে।

আরজে আনমল তাঁর ও অমৃতার শুরুর দিককার প্রেম ও বর্তমান সংসার জীবনের নানান বিষয়ে তুলে ধরে ইউটিউবে নিয়মিত ‘কাপল অব থিংস’ নামক ভিডিও প্রকাশ করে থাকেন।

হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, ১০ ফেব্রুয়ারি অমৃতা-আনমলের ‘কাপল অব থিংস’-র নতুন একটি ভিডিও এসেছে। যেখানে অমৃতাকে কথা বলতে শোনা গেছে, ক্যারিয়ারে কোন কোন সিনেমার অফার ফিরিয়ে দিয়েছেন তিনি। জানিয়েছেন, যশরাজ ফিল্মসের ইন হাউজ হিরোইন হওয়ার অফারও এসেছিল তাঁর কাছে।

অমৃতা জানান, যশরাজ ফিল্মসের ‘নীল অ্যান্ড নিকি’ এবং ‘বাচনা হে হাসিনো’ সিনেমার অফার এসেছিল তাঁর কাছে। তবে সিনেমায় চুমু খেতে হবে বলে অফার দেন ফিরিয়ে।

ভিডিও শুরু হয় অমৃতার ২০১১ সালের স্মৃতি দিয়ে। যেখানে তিনি বলেন, সিনেমা হলে শ্রদ্ধা কাপুরের ‘লাভ কা দ্য এন্ড’ দেখে কেঁদে ফেলেছিলেন তিনি। মনে মনে ভেবেছিলেন, আমাকে কেন এরকম সিনেমার অফার দেয় না যশরাজ।

অমৃতা জানান, এর কয়েকমাস পরেই যশরাজ স্টুডিও থেকে ফোন আসে তাঁর কাছে। তাঁকে ইন হাউজ হিরোইন হওয়ার প্রস্তাব দেন আদিত্য চোপড়া।

আরও পড়ুন: আল্লুর সঙ্গে পর্দায় প্রেম আলিয়ার

তবে, পরিষ্কারভাবে জানিয়ে দেন সিনেমায় চুম্বন দৃশ্য থাকবে, থাকবে ঘনিষ্ঠ মুহূর্ত। অমৃতা কি এখন এই ধরনের চরিত্রে কাজ করতে চান, জানতে চান আদিত্য। সঙ্গে জানান, অমৃতা যদি না চান তাহলে যেন শুধু ‘না’ লিখে মেসেজ করে, কোনো ধরনের ফর্মালিটি করার দরকার নেই।

Amrita Rao: চুম্বন দৃশ্যে আপত্তি, আদিত্য চোপড়াকে ফিরিয়ে দেন অমৃতা - West Bengal News 24

‘বিবাহ’ সিনেমার কারণে পারিবারিক সিনেমার নায়িকা হিসেবে বলিউডে পরিচিতি পান অমৃতা। সেই চেনা ছকই ভাঙতে চেয়েছিলেন আদিত্য চোপড়া। অভিনেত্রীকে দেখতে চেয়েছিলেন অন্য ঘরানার সিনেমায়।

অমৃতা জানান, তিনি যশরাজ ফিল্মসের সঙ্গে কাজ করার জন্য মুখিয়ে ছিলেন। কিন্তু দ্বিধাদ্বন্ধে ভুগছিলেন পর্দায় ঘনিষ্ঠ হওয়া নিয়ে। বাসায় ফিরে কথা বলেন আনমলের সঙ্গে। তিনি তাঁকে পরামর্শ দেন, হৃদয়ের কথা শুনতে।

অমৃতা এরপর বুঝতে পারেন, তিনি এতদিন ধরে এটা চাই এটা চাই করে যেটা ভাবছিলেন, আসলে সেটা চানই না তিনি। আদিত্য চোপড়াকে মেসেজ করে জানান, ‘স্যার, আমি একজনের সঙ্গে সম্পর্কে রয়েছি। আপনার অফার দারুণ সম্মানের। কিন্তু আমি এটার পূর্ণ মর্যাদা দিতে পারব না।’ অমৃতার মনের দ্বিধা বুঝতে পেরেছিলেন আদিত্য চোপড়া। উত্তর দিয়েছিলেন, ‘আমি বুঝতে পেরেছি। পরবর্তীতে তোমার উপযোগী কোনো চরিত্র থাকলে অবশ্যই জানাব।’

আনমল জানান, ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির প্রথম মানুষ আদিত্য চোপড়া যিনি প্রথম জেনেছিলেন তাঁর আর অমৃতার সম্পর্কের ব্যাপারে। অমৃতাও জানান, তিনি খুব সম্মান করেন আদিত্যকে।

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button