কলকাতা

পার্থর কী মেডিক্যাল রিপোর্ট দিল ভুবনেশ্বর এইমস?

নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় গ্ৰেফতার রাজ্যের শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের অসুস্থতার বিষয়ে রিপোর্ট জমা দিয়েছে AIIMS ভুবনেশ্বর। AIIMS ভুবনেশ্বরের চিকিত্‍সকরা পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ডাক্তারি পরীক্ষা করেছেন। ডাক্তারি পরীক্ষায় বলা হয়েছে পার্থ চট্টোপাধ্যায় কিডনি, হার্ট, স্থূলতা সহ বহু দুরারোগ্য রোগে আক্রান্ত।

তবে এজন্য তাকে হাসপাতালে ভর্তির প্রয়োজন নেই। তার অবস্থা গুরুতর নয়। শুধু নিয়মিত ওষুধ খেতে হবে। ভুবনেশ্বর এইমস ইডি-র কাছে রিপোর্ট পেশ করেছে। আজই কলকাতা হাইকোর্টে রিপোর্ট পেশ করবে ইডি এবং পার্থ চট্টোপাধ্যায়কেও আজই হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, শিক্ষক নিয়োগ কেলেঙ্কারিতে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের হাতে গ্রেফতার হওয়ার পর পার্থ চট্টোপাধ্যায় বুকে ব্যথার অভিযোগ করেছিলেন। এরপর আদালতের নির্দেশে তাকে কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর বিরুদ্ধে আদালতে আপিল করে ইডি।

আদালতের নির্দেশের পর সোমবার সকালে তাকে ভুবনেশ্বরে নিয়ে যাওয়া হয়, যেখানে এইমস-এ তার ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হয়।

ভুবনেশ্বর AIIMS-এর নির্বাহী পরিচালক আশুতোষ বিশ্বাস সোমবার বলেন, ‘তার চার-পাঁচ ধরনের রোগ রয়েছে। এর মধ্যে কিডনি, হার্ট ও স্থূলতার মতো কিছু রোগ রয়েছে। তিনি দীর্ঘদিন ধরে বেশ কিছু ওষুধ খাচ্ছেন।

তার অসুস্থতা ‘গুরুতর’ নয়। বর্তমানে তার অবস্থা এমনও নয় যে, তাকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হবে। তিনি নিজের বাড়িতে থেকেও এর ওষুধও খেতে পারেন। আমরা শীঘ্রই তাকে ছেড়ে দেব।’

প্রসঙ্গত, সোমবার সকালে কড়া নিরাপত্তার মধ্যে পার্থকে এসএসকেএম হাসপাতাল থেকে অ্যাম্বুলেন্সে কলকাতা বিমানবন্দরে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে ভুবনেশ্বরে পাঠানো হয়। সেখানে ভুবনেশ্বর এইমস-এ তাঁর ডাক্তারি পরীক্ষা করা হয়। এরপর এদিন তাকে আদালতে হাজিরা দিতে হবে।

এ প্রসঙ্গে ইডি আধিকারিকরা জানিয়েছেন, বিকেল ৪টায় পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে ভার্চুয়াল মাধ্যমে আদালতে পেশ করা হবে। এখন হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর তাকে কলকাতায় আনা হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

 

 

আরও পড়ুন ::

Back to top button