জীবন যাত্রা

প্রতারণার চেয়েও খারাপ হতে পারে প্রেম সম্পর্কের যে ১০টি দিক

প্রেমে পড়া ভাল। কিন্তু প্রেমে প্রতারণা? নিশ্চয়ই বলবেন, প্রতারণার চেয়ে খারাপ একটি প্রেম সম্পর্কের ক্ষেত্রে আর কী-ই বা হতে পারে? কিন্তু একটি প্রেমে এমন কিছু অবস্থা তৈরি হতে পারে যা আসলে প্রেমে প্রতারণার চেয়েও খারাপ। জেনে নিন এমনই কিছু বিষয়ের কথা—

১. নিছক সুবিধাজনক বলেই একটি সম্পর্ক রক্ষা করে চলা
একটি সম্পর্কে যখন জড়িয়ে পড়েছি, তখন একটু অসুবিধা হলেও তাতেই লেগে থাকি না কেন? তা না হলে আবার নতুন প্রেমিক/প্রেমিকা খোঁজো, তার সঙ্গে ভাব জমাও, তাকে ইমপ্রেস করো, দুরুদুরু বক্ষে তাকে প্রোপোজ করো… ওহ, সে অনেক হ্যাপা! তার চেয়ে যা চলছে, চলুক। প্রেমজীবনে এমন নেতিয়ে পড়া মনোভাবের চেয়ে প্রতারণাও ভাল।

২. দু’জনের মধ্যে স্বচ্ছন্দ সংযোগের অভাব
একসঙ্গে দু’জনে সময় কাটাচ্ছেন অনেকটা। ফোনে কথা বলছেন কয়েক ঘন্টা করে। কিন্তু বারবার যেন মনে হচ্ছে, মন খুলে মনের কথা যেন কিছুতেই বলে উঠতে পারছেন না সঙ্গীকে। নিজের সুখ-দুঃখ, সমস্যাগুলো যেন ভাগ করে নিতে পারছেন না তার সঙ্গে। তাহলে বুঝতে হবে, প্রতারণার চেয়েও খারাপ কিছু ঘটে যাচ্ছে আপনাদের সম্পর্কটিতে।

৩. সঙ্গীকে মিথ্যে বলা বা তার কাছে কিছু গোপন করা
অনেক সময়েই কি নিছক অশান্তির ভয়ে বা সঙ্গী দুঃখ পাবে এমন আশঙ্কায় তার কাছে গোপন করছেন কোনও কথা, বা মিথ্যে বলছেন সময়বিশেষে? অথচ যে মানুষটিকে আপনি সবচেয়ে ভালবাসেন, তার কাছেই তো আপনার সবচেয়ে সৎ থাকার কথা। তেমনটা না হলে বুঝতে হবে, রিলেশন মে কুছ কালা হ্যায়।

৪. সঙ্গীর মত মেনে নিতে অসুবিধা বোধ করা
আপনি যখন গজল শুনতে চাইছেন তখন সে চাইছে রক। আপনার ইচ্ছে চাইনিজ খাওয়ার অথচ সে মোগলাই ছাড়া মুখে তুলবে না। মতের এমন অমিল হলেই কি আপনি ভয়ানক চটে যাচ্ছেন, চোটপাট শুরু করছেন প্রেমিক/প্রেমিকার উপর? এমন অবস্থা হলে সেই সম্পর্ককে কি খুব সুস্থ সম্পর্ক বলা যায়? অন্যের মতকে গুরুত্ব দিতে শেখা কিন্ত একটা সফল প্রেম সম্পর্কের একবারে গোড়ার কথা। তেমনটা যদি না হয় তাহলে আপনি প্রেমে প্রতারণার চেয়েও খারাপ অভিজ্ঞতার মধ্যে দিয়ে চলেছেন।

৫. রাগ আর আবেগকে মনে পুষে রাখা
আপনি কোনও ভগবান বা ভূত নন যে আপনার কখনও রাগ বা দুঃখ কিছু হবে না। আর রাগ হলে সেই রাগের বহিঃপ্রকাশ অত্যন্ত আবশ্যক। যদি অশান্তির ভয়ে রাগকে মনের ভিতরেই দমিয়ে রাখতে হয় তাহলে নিশ্চয়ই সঙ্গীর সঙ্গে আপনার সম্পর্ক খুব মসৃণ নয়। সেটা প্রতারণার চেয়েও খারাপ।

৬. সন্দেহ হলে তা নিয়ে আলোচনার বদলে অভিযোগ করা
আপনার বয়ফ্রেন্ড আপনার প্রতি জন্মদিনে আপনাকে সবার আগে উইশ করে। কিন্তু এ বছর করল না। এমনকী আপনার জন্মদিনে উইশ করতেই বেমালুম ভুলে গেল হয়তো। আপনি একরাশ অভিমান নিয়ে মাঝরাতে তাকে ফোন করে সরাসরি শুরু করলেন তুমুল ঝগড়া। ভেবে দেখুন, সরাসরি রণরঙ্গিনী মূর্তি ধারণ করার আগে আপনার ভালবাসার মানুষটিকে কি আপনার একবার জিগ্যেস করা উচিৎ ছিল না যে, সে কোনও সমস্যায় পড়েছে কি না, কিংবা সে কি দুশ্চিন্তায় আছে খুব? এ বছর যে সে আপনার জন্মদিনটি ভুলে গেল তার নিশ্চয়ই কারণ আছে কোনও। সেই কারণটি বোঝার চেষ্টা না করে সরাসরি তার দিকে অভিযোগের আঙুল তোলা যদি শুরু করেন তাহলে বুঝে নিন, প্রেমে প্রতারণার চেয়েও খারাপ কিছু ঘটে যাচ্ছে আপনাদের সঙ্গে।

৭. কোনও কিছু প্রয়োজন হলে তা সরাসরি বলতে না পারা
যে কোনও সাহায্যের দরকার হলে নিজের সঙ্গীকে তা সরাসরি বলতে পারাই সুস্থ সম্পর্কের লক্ষণ। তেমনটা হওয়ার পরিবর্তে যদি নিজের কোনও প্রয়োজনের কথা বলতে হাজার রকমের ধানাই-পানাই করতে হয় আপনাকে তাহলে বুঝে নিন, আপনি এই সম্পর্কে মোটেই স্বচ্ছন্দ নন।

৮. কেবল পারস্পরিক নির্ভরযোগ্যতার কারণেই কেবল একটি সম্পর্ককে টিকিয়ে রাখা
আপনি বুঝতে পারছেন আপনাদের দু’জনের মধ্যে আর কোনও ভালবাসা নেই, মরে গেছে সব প্রেম। কিন্তু তা সত্ত্বেও সম্পর্কটাকে টিকিয়ে রেখেছেন কেবল ‘ওর’ ওপর নানা কাজে আপনাকে নির্ভর করতে হয় বলে। এমন অবস্থায় পড়ার থেকে প্রেমে প্রতারিত হওয়াও ঢের ভাল।

৯. স্বচ্ছতার অভাব অনুভব করা
ভালবাসার সম্পর্ক যত স্বচ্ছ হবে তত দৃঢ় হবে বন্ধন। নিজের প্রয়োজন, সুবিধা-অসুবধা, প্রত্যাশা— সব মন খুলে জানান সঙ্গীকে। তা জানানোর মতো অবস্থা যদি না থাকে তাহলে, জেনে রাখুন, আপনাদের মধ্যে প্রকৃত ভালবাসার অভাব আছে।

১০. সঙ্গীর প্রতি নিজের ভালবাসা জানাতে অস্বচ্ছন্দ বোধ করা
মনে রাখবেন, আপনার সঙ্গী অন্তর্যামী নন। আপনি যদি তাঁকে না জানান যে আপনি তাঁকে কতটা ভালবাসেন তাহলে তাঁর পক্ষে বোঝা কঠিন যে তাঁর প্রতি আপনার ভালবাসা কতটা গাঢ়। কাজেই নিজের ভালবাসার কথা মন খুলে তাঁকে জানান। আর যদি তা না পারেন? তাহলে আর কী, মনে মনে হাহাকার করে বলুন, এর চেয়ে যে প্রেমে প্রতারিত হওয়াও ছিল ভাল!

আরও পড়ুন ::

Back to top button