জানা-অজানা

ভেবে দেখেছেন কেন বিয়ারের বোতল কেবল বাদামী আর সবুজ হয়! রইল অজানা তথ্য!

স্বপ্নীল মজুমদার

পার্টি, উৎসব উপলক্ষে বিয়ার তো অনেকেই খেয়ে থাকে। কিন্তু কখনও লক্ষ্য করেছেন কি যে বিয়ারের বোতলের রং কেন সাদা হয়না। সমস্ত বিয়ারের বোতলই হয় বাদামী নয়তো সবুজ হয়।

কিন্তু জানেন কি এর নেপথ্য কারণ ইতিহাস ঘাঁটলে জানা যায় প্রায় হাজার বছর আগে বিয়ারের প্রচলন শুরু হয়। আর সম্ভবত মিশরীয়রাই এই পানীয়ের উদ্ভাবন ঘটান। যদিও সেইসময় বোতলে করে পাওয়া যেতোনা এই পানীয়। মোটামুটি ১৯ শতকের দিকে প্রথম বোতলের ব্যবহার শুরু হয়। প্রথম প্রথম বিয়ার রাখার জন্য স্বচ্ছ বোতলই ব্যবহার করতো মানুষ।

আরও পড়ুন :: তাজমহলের ২০ হাজার শ্রমিকের হাত কি শাহজাহান সত্যিই কেটে নিয়েছিলেন

মানুষের ধারণা ছিলো স্বচ্ছ বোতলে রাখলে তার স্বাদ আর গন্ধ ভালো থাকবে। কিন্তু বাস্তবে হয়ে যায় ঠিক তার উল্টো। দেখা যায় এরপরেই ধীরে ধীরে কয়েকঘন্টার মধ্যেই হারিয়ে যাচ্ছে বিয়ারের স্বাদ ও গন্ধ। কারণ খুঁজতে গিয়ে জানা গেলো যে, সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি এসে আটকাচ্ছে স্বচ্ছ বোতলে আর তার প্রভাবেই হারিয়ে যাচ্ছে বিয়ারের স্বাদ ও গন্ধ।

এরপর নানান পরীক্ষা নিরীক্ষার পর দেখা যায় বাদামী রঙের বোতলে সেরকম প্রভাব পড়ছেনা। তখন থেকে বাদামী রঙের বোতলেই বন্দি করা হলো সকলের কাঙ্ক্ষিত এই পানীয়কে। এদিকে দিনদিন বাড়ছে বিয়ারের চাহিদা আর ওদিকে তখন দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের দামামা। এমতাবস্থায় বাদামী রঙের বোতলের আমদানী কমে যাওয়ায় গাঢ় সবুজ বোতলের ব্যবহার শুরু করলো বিয়ার প্রস্ততকারীরা।

আরও পড়ুন :: শিশুদের ‘কলিজা’ খাওয়াই ছিল বাংলার প্রথম নবাবের কন্যার নেশা

দেখা গেলো এই বোতলেও বিয়ারের স্বাদ গন্ধ ঠিকই থাকছে। তখন থেকেই বাদামী এবং গাঢ় সবুজ রঙের বোতলে বিয়ার সংরক্ষণ শুরু হলো।

বর্তমান দিনে তো আবার বোতলের গায়ে অতিবেগুনি রশ্মি রোধক কোটিং লাগিয়ে দেয় সংস্থাগুলি। এতে করে বিয়ারের স্বাদ, গন্ধ দুটোই আরো ভালো থাকে।

আরও পড়ুন ::

Back to top button