হাওড়া

শৈলেশের দুই ফ্ল্যাট থেকে ৮ কোটি, আর কী কী উদ্ধার হল?

ওয়েস্ট বেঙ্গল নিউজ ২৪

শৈলেশের দুই ফ্ল্যাট থেকে ৮ কোটি, আর কী কী উদ্ধার হল?
Pic Courtesy : Anandabazar

গুনতে গুনতে ৮ কোটি ছাড়িয়ে গিয়েছে। হাওড়ার ব্যবসায়ী শৈলেশ পান্ডের দু’টি ফ্ল্যাট থেকে মোট ৮ কোটি ১৫ লক্ষ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে৷ এমনই দাবি করেছে কলকাতা পুলিশ৷ অবশ্য শুধু টাকাই নয়, এর সঙ্গে রয়েছে সোনা-হিরে সবই। রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় হানা দিয়ে মিলছে পাহাড় প্রমাণ টাকার হদিস।

পুলিশ জানিয়েছে, রবিবার হাওড়ার অপ্রকাশ মুখার্জী লেনে শৈলেশের দ্বিতীয় ফ্ল্যাটে হানা দিয়ে মোট ৫ কোটি ৯৫ টাকা উদ্ধার করা হয়৷ এর আগে কলকাতা হেয়ার স্ট্রিট থানার পুলিশ শনিবার রাতে অভিযান চালিয়ে শিবপুরেই শৈলেশের গাড়ি থেকে ২ কোটি টাকা উদ্ধার করে। গাড়ির ভিতরে বিশেষ লকারে রাখা ছিল টাকা। উদ্ধার হওয়া টাকার মধ্যে রয়েছে ৫০০ এবং ২০০০ টাকার নোট৷ এর পাশাপাশি ওই ব্যবসায়ীর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে থাকা ২০ কোটি টাকা বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ৷ নিয়মিত সেই দুটি অ্যাকাউন্ট থেকে লেনদেন চলত বলে জানা গিয়েছে।

এখানেই শেষ নয়, পুলিশের তরফে এও জানানো হয়েছে, গত দু’ দিন তল্লাশি চালিয়ে হাওড়ার দু’টি ফ্ল্যাট থেকে বেশ কিছু গয়না, দু’টি ল্যাপটপ, একটি ট্যাব এবং বেশ কিছু ব্যাঙ্কের নথি মিলেছে৷ তবে এখনও পর্যন্ত অভিযুক্ত ব্যবসায়ীর খোঁজ পায়নি পুলিশ৷ শৈলেশের দুই ভাইকেও খুঁজছে পুলিশ৷

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বিভিন্ন লোককে লোন পাইয়ে দেওয়ার নামে প্রতারণার কারবারের অভিযোগ ছিল এই শৈলেশ পান্ডের নামে। অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার হয়েছিল শৈলেশ পান্ডে। সেই মামলার সূত্রে অভিযান চালিয়ে এই বিপুল টাকা, সোনা ও হীরে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পেশায় একজন চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট শৈলশ৷ বিদেশ থেকে কালো টাকা নিয়ে এসে সাদা করার কাজও সে করত বলে তদন্তে জানতে পেরেছেন গোয়েন্দারা৷

আরও পড়ুন ::

Back to top button