স্বাস্থ্য

হু হু করে ছড়াচ্ছে যৌন রোগ ‘সিফিলিস’, কিভাবে বুঝবেন যৌনাঙ্গ সংক্রমিত?

how to treat syphilis : হু হু করে ছড়াচ্ছে যৌন রোগ ‘সিফিলিস’, কিভাবে বুঝবেন যৌনাঙ্গ সংক্রমিত? - West Bengal News 24

কোভিড অতিমারীর প্রকোপ কমার দেড় বছরও কাটেনি। এর মধ্যেই ‘সিফিলিস’ নিয়ে দেখা দিল উদ্বেগ। দ্রুত হারে ছড়াচ্ছে বিশ্বের প্রাচীনতম এই যৌন রোগ। পরিস্থিতি এই রকম থাকলে তা মহামারীর রূপ নিতে পারে বলে অনুমান চিকিৎসক ও গবেষকদের একাংশের।

চলতি বছরের এপ্রিলে যৌন সংক্রমণজনিত রোগের একটি তথ্য প্রকাশ্যে আনে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য দফতর। সেখানে বলা হয়েছে, গত তিন বছরের মধ্যে ২০২০ ও ২০২১-এ সিফিলিসের সংক্রমণ মারাত্মক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। এই দুই বছরে যৌন রোগটিতে আক্রান্তের পরিমাণ বেড়েছে ৩২ শতাংশ। যা গত ৭০ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। ২০২২-এ সংক্রমণ সেভাবে না বাড়লেও কমার কোনও লক্ষণ দেখা যায়নি।

এই তথ্য় প্রকাশ্যে আনার পাশাপাশি সতর্কবার্তাও দিয়েছেন মার্কিন চিকিৎসক ও গবেষকরা। উল্লেখ্য়, সিফিলিস এমন একটি যৌনরোগ যার কোন চিকিৎসা নেই। শুধু তাই নয়, মানব দেহে সিফিলিসের অ্যান্টিবডি তৈরি করা খুবই কঠিন বলে জানিয়েছেন তাঁরা। সেই কারণে এই রোগের সংক্রমণ বৃদ্ধিকে আতঙ্কজনক বলে উল্লেখ করেছেন মার্কিন গবেষকরা।

চিকিৎসকদের আরও দাবি, ২০২০ থেকে সবচেয়ে বেশি বেড়েছে ‘কনজেনিটাল সিফিলিস’। এটি বিশেষত একটি জন্মগত যৌন রোগ। গর্ভাবস্থাতেই ভ্রূণের মধ্যে এই রোগের সংক্রমণ ছড়ায় বলে জানা গিয়েছে। যৌন সঙ্গীর থেকেই অন্তঃসত্ত্বার দেহে ছড়ায় সিফিলিস। যাতে আক্রান্ত হয় তাঁর দেহে বড় হতে থাকা ভ্রূণ। ফলে মৃত সন্তান প্রসব করার পরিমাণ বাড়ে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

প্রসঙ্গত শুধু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রই নয়, গত কয়েক বছরে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়েছে প্রাচীনতম এই যৌন রোগ। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা WHO দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ২০২০-তে নতুন করে সিফিলিসে আক্রান্ত হন ৭১ লাখ মানুষ। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি সংক্রমিতের হদিশ মিলেছে ব্রিটেনে। ১৯৪৮-র পর এই রোগে সর্বাধিক আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে ইউরোপের এই দ্বীপরাষ্ট্রে।

WHO দাবি, ২০২০ ও ২০২১-এ বিশ্বজুড়ে সিফিলিসে আক্রান্তের পরিমাণে বেড়েছে প্রায় নয় শতাংশ। “২০০৫-এ এই রোগে সংক্রমিতের খোঁজ পাওয়া যেত না বললেই চলে। কোভিড শুরুর পর থেকেই যা ধীরে ধীরে বাড়তে শুরু করে।” জানিয়েছেন ব্রিটেনের এসটিআই ফাউন্ডেশনের কো-চেয়ার জোডি ক্রসম্যান।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, সিফিলিসের সংক্রমণ ছড়াতে সাহায্য করে ট্রেপোনেমা প্যালিডাম নামের একটি ব্যাকটেরিয়া। সংক্রমিতদের যৌনাঙ্গে এক ধরনের ব্যথাহীন কালশিটে বা ফুসকুড়ি দেখা দেয়। এর জেরে স্নায়ুবিক ও হৃদরোগের সমস্যা হতে পারে বলেও জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন ::

Back to top button