হাওড়া

তেরঙ্গা জাতীয় পতাকা হাতে নিয়ে দ্রীপ্তকন্ঠে অশ্রু ঝরা চোখে আজও শহীদ ছেলের হত্যাকারীদের শাস্তির দাবিতে বাবলু সাঁতরার মা

প্রসেনজিৎ পান্ডা

বাউরিয়াঃ ২০১৯ শের ১৪ ই ফেব্রুয়ারি সারা বিশ্ব যখন মেতে উঠেছে প্রেম দিবস পালনে ঠিক তখনই টেলিভিশনের পর্দায় সংবাদ হেডলাইনে উঠে এলো পুলুওয়ামায় জঙ্গি হামলায় নিহত গ্রামীণ হাওড়ার বাউরিয়া থানার চককাশী গ্রামের শহীদ জওয়ান বাবলু সাঁতরার খবর। আর ঠিক রাখতে পারেনি নিজেকে। আজও দোষীদের শাস্তির দাবি অনড় বাবলু সাঁতরা মা। দেশরক্ষার দায়িত্বের পাশাপাশি কাঁধে তুলে নেওয়া দেশের জাতীয় পতাকা বয়ে বেড়ানো বছর ত্রিশের যুবক বাবলু সাঁতরার কাজ আজও অসমাপ্ত এই দাবিকে সামনে রেখে দুবছর ধরে বাড়ির অন্দর মহলে ছেলের শয়নকক্ষে টেবিলে জাতীয় পতাকা স্থান দেওয়ার পাশাপাশি,দীপ্তকন্ঠে-অশ্রূঝরা চোখে জাতীয় পতকা কাঁধে দোষীদের শাস্তির দাবিতে দাঁড়িয়ে থাকে শহীদ পরিবারের সদস্যরা।

দোষীরা শাস্তি কবে পাবে ? সেই প্রশ্নকে তুলে ধরে আজকের দিনটিকে কালা দিবস হিসেবে পালন করে বাবলু সাঁতরা পরিবারের সদস্যরা ও গ্রামবাসীরা।

উলুবেড়িয়া পৌরসভার উদ্যোগে ১১ নং ওয়ার্ডের চককাশী গ্রামে শহীদ জওয়ানের বাল্য বয়সের স্মৃতি আঁকড়ে থাকা পাড়ার মাঠে গড়ে তোলা হয়েছে আবক্ষমূর্তি। আবক্ষমূর্তির পাশাপাশি চেঙ্গাইল কাঞ্চনবানী সিনেমাতলা থেকে গঙ্গার ধার পযর্ন্ত কয়েক কিলোমিটার রাস্তা শহীদ বাবলু সাঁতরা সরণী রাখা হল।রবিবার শহীদ বাবলু সাঁতরার নামাঙ্কিত রাস্তার ও আবক্ষমূর্তির উন্মোচন করেন এলাকার বিধায়ক ইদ্রিস আলী। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উলুবেড়িয়া দক্ষিণের বিধায়ক পুলক রায়। পৌর প্রশাসক অভয় দাস সহ অন্যান্যরা।

সভামঞ্চ থেকে স্থানীয় বিধায়ক বলেন-” শহীদ জওয়ান বাবলু সাঁতরা দেশভক্তি আমাদের সকলের জানা। আজ এই কঠিন দিনে কোন রাজনৈতিক মন্তব করব না। ওনার মা এবং গ্রামবাসীদের দাবি মতো এই মূর্তি উন্মোচন করা হল। এইরকম অজস্র বাবলু সাঁতরার জন্য আমরাও সকলে গর্বিত “।

আরও পড়ুন ::

Back to top button