রাজনীতিরাজ্য

‘নির্বাচন করার জন্য পাগল হয়ে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী’: দিলীপ ঘোষ

Dilip Ghosh : ‘নির্বাচন করার জন্য পাগল হয়ে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী’: দিলীপ ঘোষ - West Bengal News 24

প্রত্যেকদিনের মত আজও নিউটাউনের ইকোপার্কে প্রাতঃভ্রমণে আসেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এরপর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন বিজেপির রাজ্য সভাপতি।

শিক্ষিকাদের আত্মহত্যার চেষ্টায় কী বললেন দিলীপ ঘোষ,

গতকাল অর্থাত্‍ মঙ্গলবার বিকাশ ভবনের সামনে তাঁদের বদলির প্রতিবাদে বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন ৫ শিক্ষিকা। তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয় হেনস্থা ও পুলিশের কাজে বাধা দেওয়ার জন্য। আর এই বিষয় সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘রাজ্যে একজন মহিলা মুখ্যমন্ত্রী আছেন, মহিলাদের আরো সন্মান বাড়ানোর কথা ভাবা হচ্ছে, সেখানে হেনস্থার মুখে পড়তে হচ্ছে শিক্ষিকাদের। সরকারি অফিসের সামনে মহিলারা বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করছেন, এর থেকে লজ্জার আর দুর্ভাগ্যর কথা কি হতে পারে।’

আরো পড়ুন : মোদী ‘মহিষাসুর’, জেলা সফরে গিয়েই প্রধানমন্ত্রীকে নিশানা সায়নীর

পাশাপাশি তিনি আরও বলেন, ‘এরাজ্যে সব থেকে কম বেতন পান শিক্ষকরা। দীর্ঘদিন ধরে তাদের ডিএ বাড়ানো হয়নি। তার উপর তাদের বদলি করা হচ্ছে অন্যায়ভাবে। এর প্রতিবাদে তারা আন্দোলনে নেমেছেন। এরাজ্যে সরকারের বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুললেই তার বিরুদ্ধে মামলা করা হচ্ছে।’ বলেও সরব হন দিলীপ ঘোষ।

উপনির্বাচন নিয়ে কী বললেন দিলীপ ঘোষ,

আবারও রাজ্যে বাড়ছে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা, সেই অবস্থায় তৃণমূল চাইছে উপনির্বাচন, অনেক নেতা চাইছেন পুরভোট কি বলবেন ?

এই প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন,

‘বিশেষজ্ঞরা সচেতন থাকতে বলেছেন। কিন্তু এরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী, মুখ্যমন্ত্রী থাকার জন্য পাগল হয়ে যাচ্ছেন। তাই কোভিড বাড়লেও তারা নির্বাচন চাইছেন। কোভিড বাড়তেই পারে। বিজেপি কোভিড সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করতে সারা দেশে প্রতি বুথে দুজনকে নিয়োগ করেছে। ৪ লক্ষ ভলেন্টিয়ার তারা মানুষকে সতর্ক করবেন, সহযোগিতা করবেন’। কেন্দ্রীয় সরকারও দরকারি পদক্ষেপ গ্রহণ করছে, কিন্তু এখানে মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচন করার জন্য পাগল হয়ে যাচ্ছেন,’ বলেও কটাক্ষ করেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

রিমঝিম মিত্র প্রসঙ্গে কী বললেন দিলীপ ঘোষ,

দলে সন্মান না পেয়ে বিজেপি দল ছাড়তে চান অভিনেত্রী রিমঝিম মিত্র। এই প্রসঙ্গে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘অনেকে ছেড়ে গেছেন, কাউকে অসম্মান করা হয়না। কেউ যদি মনে করেন সম্মান পাচ্ছেন না কী করা যাবে। দলে প্রতিটি কর্মীকেই সন্মান দেওয়া হয়। তাদের সকলের সমান গুরুত্ব রয়েছে।’

আরো পড়ুন : জীবন থাকতে বাংলার অঙ্গচ্ছেদ হতে দেব না : পার্থ চট্টোপাধ্যায়

একইসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘যাদের নির্বাচনের পর মুখই দেখা যায়নি তাদের সম্মান অসম্মান কী আছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘উনি আগেই ওয়াটস অ্যাপ গ্রুপ ছেড়েছেন। কারোর যদি দলে ভালো না লাগে তিনি দল ছাড়তেই পারেন। এতে দলের কোনো ক্ষতি হবে না। দলের কিছু যায় আসে না’ বলেও স্পষ্ট করে দেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

সূত্র: প্রথম কলকাতা

আরও পড়ুন ::

Back to top button