অর্থনীতিরাজ্য

রাজ্য সরকারকে ৯০০ কোটির টাকা ঋণ দিতে পারে বিশ্ব ব্যাঙ্ক, তুঙ্গে চর্চা

‘কন্যাশ্রী প্রকল্প’ আগেই আন্তর্জাতিক সম্মান পেয়েছে। এছাড়া আরও একাধিক উন্নয়নমূলক প্রকল্পের হাত ধরে আন্তর্জাতিক স্তরে খ্যাতি পেয়েছে বাংলা। তাই বিভিন্ন সামাজিক প্রকল্পে বিশ্ব ব্যাঙ্ক সাহায্যের হাত বাড়িতে দিতে পারে বলে আগেই শোনা গিয়েছিল। এবার খবর, উন্নয়নমূলক আর্থিক প্রকল্পগুলিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে ১২.৫০ কোটি মার্কিন ডলার ঋণ দেওয়ার কথা ভাবছে বিশ্ব ব্যাঙ্ক। ভারতীয় মুদ্রায় যা ৯১২ কোটি টাকা।

তবে কবে এই ঋণ মিলবে তা এখনও খোলসা করা হয়নি। তৃতীয়বার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষমতায় আসার পর ‘দুয়ারে সরকার’ প্রকল্প ব্যাপক গতি পেয়েছে। আবার ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডার’ প্রকল্প চালু করে দেওয়ায় তা অন্য মাত্রা পেয়েছে। এই সব সামাজিক প্রকল্প এখন জনপ্রিয়তার তুঙ্গে। আর তাতেই সাড়া দিতে চলেছে বিশ্ব ব্যাঙ্ক বলে খবর। যা ঘটলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার মাইলফলক স্পর্শ করবে।

আরো পড়ুন : সুস্থ হচ্ছে বাংলা, এক ধাক্কায় অনেকটা কমল রাজ্যের দৈনিক সংক্রমণ

জানা গিয়েছে, মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণার সঙ্গে তাল মিলিয়ে দৌড়াতে চাপে পড়ছিলেন আমলা থেকে শুরু করে সরকারি আধিকারিকরা। এবার বিশ্ব ব্যাঙ্ক পাশে থাকবে জানতে পেরে এই দুশ্চিন্তা মেঘ কাটল রাজ্য সরকারের আধিকারিকদের। সূত্রের খবর, ‘উইমেনস এমপাওয়ারমেন্ট অ্যান্ড ইনক্লুসিভ সোশ্যাল প্রোটেকশন প্রোগ্রামের’ আওতায় এই আর্থিক সাহায্যের পরিকল্পনা করেছে বিশ্ব ব্যাঙ্ক।

উল্লেখ্য, ‘কন্যাশ্রী’, ‘রূপশ্রী’ থেকে শুরু করে সম্প্রতি চালু হওয়া ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডার’—সবই মহিলাদের উন্নয়নের জন্য। ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডার’ প্রকল্পের আওতায় রাজ্যের মহিলাদের মাসে ৫০০ টাকা করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। আর তফসিলি জাতি, উপজাতি এবং পিছনে বর্গের মহিলাদের জন্য মাসে ১০০০ টাকা দেওয়া হবে এই প্রকল্পের আওতায়। ‘স্বাস্থ্যসাথী’, ‘সবুজসাথী’, ‘স্টুডেন্টস ক্রেডিট কার্ডের’ মতো সুবিধাও এখন রাজ্যের নাগরিকরা পাচ্ছেন।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

আরও পড়ুন ::

Back to top button