ওপার বাংলা

প্রেমিকের অশ্লীল ভাষায় গালাগালি সইতে না পেরে তরুণীর আত্মহত্যার অভিযোগ

মেহেদী হাসান

বরগুনার পাথরঘাটায় ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে রাজিয়া সুলতানা (১৮) নামে এক তরুণী আত্মহত্যা করেছেন। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। রাজিয়া সুলতানা বরগুনার তালতলী উপজেলার লাউপাড়া এলাকার ফজলুল হকের মেয়ে।

জানা গেছে, রাজিয়া সুলতানার সঙ্গে তার চাচাতো ভাই রফিকুল ইসলামের দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল। বিষয়টি জানাজানি হলে দেড় মাস আগে রাজিয়াকে পাথরঘাটায় তার খালার বাসায় রাখা হয়।

এতে ক্ষোভে গতকাল বুধবার (১৩ অক্টোবর) বিকেলে রফিকুল রাজিয়াকে ফোন দিয়ে নানা অশ্লীল ভাষায় গালাগালি করে। এতে ঘৃণায় আত্মহত্যা করেছে রাজিয়া।

রাজিয়া সুলতানার খালা লাবণী আক্তার বলেন, বৃহস্পতিবার সকালে আমার ছোট ছেলেকে রাজিয়ার কাছে রেখে বড় মেয়েকে নিয়ে আমি স্কুলে যাই। কিন্তু স্কুল থেকে ফিরে ঘরের দরজা বন্ধ পাই।

আরও পড়ুন : চলন্ত বাসে ধর্ষণ থেকে বেঁচে আসার রোমহর্ষক গল্প বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর

পরে অনেক ডাকাডাকির পরেও না খোলায় স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় দরজা ভেঙে ঝুলন্ত অবস্থায় রাজিয়াকে উদ্ধার করে পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

লাবনী আক্তার আরও বলেন, আমার ভাগনি রফিকুলের গালাগালি সহ্য না করতে পেয়ে ঘৃণায় আত্মহত্যা করেছে। আমি এর বিচার চাই।

এ বিষয়ে পাথরঘাটা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আবুল বাশার ঘটনার সত্যতা ‌নিশ্চিত করে বিডি২৪লাইভকে বলেন- রাজিয়ার মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

তিনি আরও বলেন- ময়না তদন্তের রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত তার মুত্যুর রহস্য জানা যাবে না। তবে এ ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলা দায়ের হয়েছে।

আরও পড়ুন ::

Back to top button