ঝাড়গ্রাম

প্রয়াত ছেলের স্মৃতিতে স্কুলকে দু’লক্ষ টাকা দান বাবার

স্বপ্নীল মজুমদার

প্রয়াত ছেলের স্মৃতিতে স্কুলকে দু’লক্ষ টাকা দান বাবার - West Bengal News 24

ঝাড়গ্রাম: ছেলের মৃত্যু হয়েছে ক্যান্সারে। ছেলে যে স্কুলে পড়তো সেই স্কুলকেই দু’লক্ষ টাকা দান করলেন বাবা। প্রয়াত ছেলে ন্যাশনাল মিনারেল ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশনের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার পদে কর্মরত ছিলেন। ঝাড়গ্রাম কুমুদকুমারী ইনস্টিটিউশনের প্রাক্তনী দেবাশিস মাইতি গত বছর এপ্রিলে ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে কলকাতার ফর্টিস হাসপাতালের শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

দেবাশিস মধ্যপ্রদেশের পান্না এলাকায় একটি হীরার খনিতে কর্মরত ছিলেন। ছেলের স্মৃতিতে মঙ্গলবার কুমুদকুমারী ইনস্টিটিউশনের প্রধান শিক্ষকের হাতে দু লক্ষ টাকার চেক তুলে দিলেন দেবাশিসের বাবা অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক অর্ধেন্দুশেখর মাইতি। বর্ষীয়ান অর্ধেন্দুশেখরবাবু ১৯৯৯ সালে ঝাড়গ্রাম গভর্মেন্ট রাজ।কলেজের পদার্থবিদ্যার বিভাগীয় প্রধান হিসেবে অবসর গ্রহণ করেন। তাঁর দুই সন্তান। দেবাশিস বড়, ছোট ছেলে আমেরিকা প্রবাসী দীপঙ্কর ইঞ্জিনিয়ার।

আরও পড়ুন : বাঘের সঙ্গে লড়াই করে বেঁচে ফিরলেন সুন্দরবনের বাবলু!

এদিন দুপুরে স্কুলে প্রধান শিক্ষকের অফিস করে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে অর্ধেন্দুশেখরবাবু দু’লক্ষ টাকার চেক তুলে দিলেন। চেক গ্রহণ করেন স্কুলের বর্তমান প্রধান শিক্ষক বিশ্বজিৎ সেনগুপ্ত। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্কুলের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক অনুপকুমার দে, সহ শিক্ষক সুফল চক্রবর্তী, তপনকুমার পাত্র, অতীনকুমার সেনাপতি প্রমুখ।

ঝাড়গ্রাম শহরের রঘুনাথপুর এলাকায় স্ত্রী নমিতাদেবীর সঙ্গে থাকেন অর্ধেন্দুশেখরবাবু। আর তাঁর বয়স ৮৪ বছর। স্ত্রী নমিতাদেবী অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষিকা। অর্ধেন্দুশেখরবাবু শারীরিকভাবে অসুস্থ। তবুও নিজের হাতে চেক তুলে দেওয়ার জন্য এদিন তিনি স্কুলে এসেছিলেন। প্রধান শিক্ষক বিশ্বজিৎবাবু জানালেন, প্রাক্তন অধ্যাপকের ইচ্ছানুযায়ী তার দান করা টাকার সুদে প্রতিবছর মাধ্যমিকে স্কুলের মধ্যে প্রথম স্থানাধিকারী এবং বিজ্ঞানে সর্বোচ্চ নম্বর প্রাপ্ত ছাত্রকে পুরস্কৃত করা হবে। প্রয়াত দেবাশিসের নামে ওই স্মৃতি পুরস্কার দেওয়া হবে।

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button