রাজনীতিরাজ্য

‘২০১৯ সালের পরে যাঁরা এসেছিলেন, তাঁরাই চলে যাচ্ছেন’: দিলীপ ঘোষ

‘২০১৯ সালের পরে যাঁরা এসেছিলেন, তাঁরাই চলে যাচ্ছেন’: দিলীপ ঘোষ - West Bengal News 24

তাঁরাই ছেড়ে যাচ্ছেন, যাঁরা ২০১৯ সালের পরে এসেছেন— দলত্যাগ নিয়ে প্রশ্নের জবাবে বৃহস্পতিবার এই মন্তব্য করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ। আর তারপর থেকেই বিজেপির ভিতরে ও বাইরে গুঞ্জন শুরু হয়েছে প্রাক্তন রাজ্য সভাপতির নিশানা নিয়ে।

সেই সঙ্গে এ রাজ্যে দল পরিচালনার রাশ দিল্লিতে থাকায় যে বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির সাফল্য আসেনি, ঘুরিয়ে সে কথাও মেনে নিয়েছেন তিনি।

গত বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বড় অংশ যোগ দিয়েছিলেন বিজেপিতে। সেই তালিকায় ছিলেন তৃণমূল সরকারের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী, সাংসদ এবং বিধায়কেরা। কিন্তু নির্বাচনের পরে তাঁদেরই অনেকে ফের বিজেপি ছেড়ে ফিরে গিয়েছেন তৃণমূলে।

এই দলবদল নিয়ে কিছুটা কটাক্ষের সুরেই এ দিন দিলীপ বলেন, ‘‘২০১৯ সালের পরে যাঁরা এসেছিলেন, তাঁরাই চলে যাচ্ছেন।’’ আদি ও নব্য বিজেপির যে চর্চা দলের অন্দরে রয়েছে সে দিকে ইঙ্গিত করেই তাঁর আরও মন্তব্য, ‘‘২০১৯ সালের আগে পর্যন্ত যাঁরা বুকে পাথরচাপা দিয়ে লড়াই করেছেন, তাঁরা যাননি।

তাঁরা অপেক্ষা করছেন।’’ কারও নাম না করলেও মুকুল রায় ও কৈলাশ বিজয়বর্গীকে ইঙ্গিত করে দিলীপের আরও মন্তব্য, ‘‘যাঁদের চাণক্য বলে আমাদের কেউ কেউ মাথায় তুলে নেচেছিল, তাঁরা তৃণমূলে ফিরে গিয়েছে।’’

২০১৯ সালের লোকসভা ভোটের আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে গিয়েছিলেন মুকুল রায়। তবে ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের আগে বিজেপিতে গিয়েছেন তৃণমূল সরকারের দুই মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়।

এই সময়ই দল ছেড়েছেন একাধিক সাংসদ ও বিধায়ক। তাঁদের মধ্যে রাজীব সহ অনেকেই তৃণমূলে ফিরে এসেছেন। তাঁদের উদ্দেশে এই মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতেই তাঁকে মনে করিয়ে দেওয়া হয়, এই সময় এসেছিলেন এই মুহূর্তে রাজ্য বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দুও। সরাসরি উত্তর এড়িয়ে দিলীপ বলেন, ‘‘আমি ভুল না ঠিক তা তাঁদেরই প্রমাণ করতে হবে।’’

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button