জাতীয়

মানসিক ভারসাম্যহীনকে পিটিয়ে খুন, অভিযুক্ত বিজেপি নেতা

মানসিক ভারসাম্যহীনকে পিটিয়ে খুন, অভিযুক্ত বিজেপি নেতা - West Bengal News 24

ধর্মীয় পরিচয় জানতে চেয়ে মানসিক ভারসাম্যহীন এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠলো বিজেপি নেতা দীনেশ কুশওয়াহার বিরুদ্ধে। শনিবার ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশে। মৃতের নাম ভঁবরলাল জৈন।

অভিযোগ, মুসলিম ভেবে ওই ব্যক্তিকে মারধর করে বিজেপি নেতা দীনেশ কুশওয়াহা। পরে তাঁর মৃতদেহ পাওয়া যায়।

পুলিশ পিটিয়ে খুন করার অভিযোগে বিজেপি নেতা দীনেশের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে।

জানা গেছে কিছুদিন আগেই নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিলেন ভঁবরলাল জৈন। এজন্য স্থানীয় থানায় ‘মিসিং ডায়েরি’ও করা হয়েছিল তাঁর পরিবারের তরফ থেকে। পরিবারের দাবি, ১৫ মে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন ওই ব্যক্তি। গত পাঁচদিন ধরে তিনি নিখোঁজ ছিলেন।

ভঁবরলাল জৈনকে হেনস্থার একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দেখা গেছে, এক ব্যক্তি হিন্দিতে ভঁবরলাল জৈনকে জিজ্ঞাসা করছেন – ‘তেরা নাম মহম্মদ হ্যায়? আধার কার্ড দিখা।’

(বাংলায় – তোমার নাম মহম্মদ? আধার কার্ড দেখাও)। কোনও কথা বলতে না পারায়, ভঁবরলালকে ক্রমাগত চড়-থাপ্পড় মারা হচ্ছে। যদিও এই ভিডিওর সত্যতা যাচাই করেনি পিপলস রিপোর্টার।

অন্যদিকে, মধ্যপ্রদেশ পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, এই ঘটনার পরই রাস্তা থেকে ওই ভবরলাল জৈনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। তাঁর ভাই রাকেশ জৈন তাঁর মৃতদেহ শনাক্ত করেন। অভিযুক্ত দীনেশ কুশওয়াহার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৪ ধারা (অবহেলায় মৃত্যু ঘটানো) এবং ৩০২ ধারায় (খুন) একটি মামলা নথিভুক্ত করা হয়েছে।

এই ইস্যুতে বিজেপি সরকারকে একহাত নিয়েছেন মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস সভাপতি কমল নাথ। তিনি এক টুইট বার্তায় রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন তুলে লিখেছেন, ‘আমি তথ্য পেয়েছি যে বিজেপির দীনেশ কুশওয়াহার বিরুদ্ধে (আইপিসি) ৩০২ ধারায় (খুন) মামলা রুজু হয়েছে। দেখা যাক তাঁকে গ্রেফতার করা হয় কি না।’

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button