সংগীত

পর্ন আসক্তি আমার সংসার ভেঙ্গে দিয়েছে: কানিয়ে ওয়েস্ট

Kanye West says pornography destroyed his family, admits he's addicted to it : পর্ন আসক্তি আমার সংসার ভেঙ্গে দিয়েছে: কানিয়ে ওয়েস্ট - West Bengal News 24

বিস্ফোরক মন্তব্য নিয়ে ইনস্টাগ্রামে ফিরলেন কানিয়ে ওয়েস্ট; বললেন নিজের পর্ন আসক্তির কথা, স্ত্রী কিম কার্ডাশিয়ানের সঙ্গে বিয়ে ভেঙে যাওয়ার কথা।

আমেরিকান র‌্যাপার কানিয়ে ওয়েস্ট বৃহস্পতিবার ইনস্টাগ্রামে পোস্টে এমন সব পোস্ট দেন বলে সিএনএনসহ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, যদিও এখন তার সোশাল মিডিয়া হ্যান্ডলে পোস্টগুলো দেখা যাচ্ছে না।

কানিয়ের সঙ্গে রিয়্যালিটি শোর তারকা কিম কার্ডাশিয়ানের জুটি ছিল হলিউডে ব্যাপক আলোচিত। তবে গত বছরের শুরুতে কিম বিচ্ছেদের আবেদন করেন, বছরের শেষে এসে নিজেকে ‘সিঙ্গেল’ ঘোষণা দেন কিম।

তাদের বিয়ে ভাঙার কারণ তখন স্পষ্ট না হলেও কানিয়ে বৃহস্পতিবার বলেন, প্রবল পর্ন আসক্তির কারণে কিমের সঙ্গে তার বিয়ে ভেঙে যায়।

“হলিউড একটি বিশাল যৌন পল্লী …. পর্নগ্রাফি আমার পরিবার ধসিয়ে দিয়েছে,” লেখেন তিনি।

Kanye West says pornography destroyed his family, admits he's addicted to it : পর্ন আসক্তি আমার সংসার ভেঙ্গে দিয়েছে: কানিয়ে ওয়েস্ট - West Bengal News 24
কিম কার্ডাশিয়ান ও কানিয়ে ওয়েস্ট তারাতখন স্বামী স্ত্রী |ছবি রয়টার্স

কিমের মা ক্রিস জেনারকে নিয়ে একথার সূত্রপাত ঘটান কানিয়ে। তার সন্তানকে প্লেবয়ের মডেল বানানোর ক্ষোভ থেকে তার এই মন্তব্য। ক্রিস জেনার কানিয়ের সাবেক স্ত্রী কিম কার্ডাশিয়ানের পাশাপাশি কাইল জেনারেরও ম্যানেজার ছিলেন।

সোশাল মিডিয়ায় কানিয়ের এমন সব বক্তব্য দেখে, তা কিম থামাতে চাইছিলেন বলে সিএনএন জানিয়েছে।

তৃতীয় স্বামী কানিয়ের সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙে যাওয়া নিয়ে কিম ঘনিষ্ঠদের বরাতে এর আগে সংবাদ মাধ্যমে খবর বেরিয়েছিল, চার সন্তান ও নিজের সম্মানের স্বার্থে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন রিয়্যালিটি তারকা।

সন্তানদের নিয়ে বৃহস্পতিবারের পোস্ট কানিয়ে ওয়েস্ট লিখেছেন, তার সন্তানরা কোন স্কুলে যাবে, সেই সিদ্ধান্ত তিনিই নেবেন। “কারণ আমিই তাদের বাবা।”

সোশাল মিডিয়ায় কানিয়ের এমন সব মক্তব্য দেখে, তা কিম থামাতে চাইছিলেন বলে সিএনএন জানিয়েছে।

একটি পোস্টে কিমের একটি টেক্সট মেসেজের স্ক্রিন শট দিয়েছেন কানিয়ে, যেখানে বলা হয়, ‘তুমি কি থামবে।”

সেই স্ক্রিনশট দিয়ে কানিয়ে লিখেছেন, “না, আমাদের নিজেদের সরাসরি কথা হওয়া দরকার।”

আরও পড়ুন ::

Back to top button