বর্ধমান

পান-গুটখার পিক ফেলা রুখতে অভিনব উদ্যোগ আসানসোলে

পান-গুটখার পিক ফেলা রুখতে অভিনব উদ্যোগ আসানসোলে

নানা রঙে সেজে উঠেছে আসানসোল আদালত চত্বর। তবে এই সৌন্দর্যায়নের লক্ষ্য যে শুধু চোখের আরাম তা নয়। বরং অসংখ্য মানুষের অসচেতনতার ছাপ ঢাকা দেওয়ার গভীর উদ্দেশ্য আছে এর পিছনে। আদালতের চতুর্দিকে এতদিন পান-গুটখার পিক পড়ে থাকতে দেখা যেত।

এমন দৃশ্য স্বভাবতই অস্বস্তি বাড়াচ্ছিল প্রয়োজনে আদালত চত্বরে আসা হাজার হাজার মানুষের। সেই ছবি বদলাতেই নতুন করে সাজানো হল জায়গাটি। আদালতের সুন্দর পরিবেশ দেখে মানুষজন সচেতন হবে, যত্রতত্র পিক ফেলবে না এমনটাই মনে করা হচ্ছে।

আদালতের দেওয়ালে স্থান পেয়েছেন গান্ধিজি থেকে শুরু করে অন্যান্য মনীষীরা। এছাড়াও দেওয়ালজুড়ে আছে নানান রঙের কাজ। মূলত এক পুলিশকর্মীর উদ্যোগে সুন্দরভাবে সাজিয়ে তোলা হয়েছে আসানসোল আদালতের দেওয়ালগুলি। তিনি বলেন, আমরা পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন পরিবেশে নিজেদের অনেক সংযত রাখি।

সুন্দর করে সাজানো জায়গাকে অপরিষ্কার করতে আমাদের বিবেকে লাগে। এই চিন্তা থেকেই আসানসোল আদালতের দেওয়ালগুলি সাজিয়ে তোলা হয়েছে। যাতে দৃশ্য দূষণ আর না হয়।

উল্লেখ্য, স্বচ্ছ ভারত অভিযানের মধ্যে দিয়ে মানুষজনকে পরিবেশ রক্ষা এবং পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন পরিবেশের বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। অন্যদিকে গুটখার পিক ফেলা বন্ধ করতে কড়া হয়েছে প্রশাসন। তা সত্ত্বেও কিছু অসচেতন মানুষের জন্য তা বন্ধ করা যায়নি।

এবার তাই অন্যরকমভাবে পরিস্থিতি বদলানোর চেষ্টা করা হল। একই সঙ্গে আশা, আগামী দিনে এমন অসচেতন পদক্ষেপ করার আগে মানুষ একটু হলেও ভাববেন।

আরও পড়ুন ::

Back to top button