রাজনীতিরাজ্য

চালকের সঙ্গে পরকীয়া! বিধায়ক চন্দনা বাউরির বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ

চালকের সঙ্গে পরকীয়া! বিধায়ক চন্দনা বাউরির বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ - West Bengal News 24

স্বামী ও সন্তানকে ছেড়ে গাড়ির চালক তথা দলেরই এক কর্মীকে বিয়ে করার অভিযোগ উঠল শালতোড়ার বিজেপি বিধায়ক চন্দনা বাউড়ির বিরুদ্ধে। অভিযোগ, বুধবার রাতে বাঁকুড়ার গঙ্গাজলঘাটি থানা এলাকার দেউলি মন্দিরে বিয়ে করার পর নিরাপত্তা চেয়ে বাঁকুড়ার গঙ্গাজলঘাটি থানায় হাজির হন চন্দনা বাউড়ি ও তাঁর গাড়ির চালক কৃষ্ণ কুন্ডু। রাতভর থানায় থাকার পর আজ সকালে নিজের শ্বশুরবাড়িতে ফিরে গিয়ে ফেসবুক লাইভ করে গোটা ঘটনাটিকে কুত্‍সা বলে দাবি করেন বিজেপি বিধায়ক।

সদ্য শেষ হওয়া বিধানসভা নির্বাচনে বাঁকুড়ার শালতোড়া বিধানসভায় বিজেপির প্রার্থী হন গঙ্গাজলঘাটি ব্লকের কিলাই গ্রামের গৃহবধূ চন্দনা বাউড়ি। পেশায় রাজমিস্ত্রী শ্রবণ বাউড়ির স্ত্রী চন্দনা প্রার্থী হওয়ার পর থেকেই খবরে ছিলেন। বিধায়ক হওয়ার পরেও বারবার শিরোনামে উঠে এসেছেন তিনি। এবার সেই বিজেপি বিধায়ক চন্দনা জড়িয়ে পড়লেন নতুন বিতর্কে।

আরো পড়ুন : বজ্রবিদ্যুত্‍ সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস কলকাতায়, ভাসবে উত্তরবঙ্গের এই পাঁচ জেলা

অভিযোগ, গতকাল রাতে বিধায়ক চন্দনা তাঁর স্বামী ও তিন সন্তানকে ছেড়ে নিজের গাড়ির চালক তথা বিজেপি কর্মী কৃষ্ণ কুণ্ডুকে বিয়ে করেন। এরপরই নিরাপত্তার দাবি জানিয়ে কৃষ্ণ কুন্ডুকে নিয়ে বিধায়ক সটান হাজির হন গঙ্গাজলঘাটি থানায়। রাতভর সেখানেই ছিলেন তাঁরা। আজ সকালে থানায় তাঁর ব্যাক্তিগত নিরাপত্তারক্ষীরা পৌঁছলে গাড়িতে চড়ে নিজের শ্বশুর বাড়িতে ফিরে যান বিধায়ক।

পরে সেখান থেকে ফেসবুক লাইভ করে বিধায়ক চন্দনা বাউরী বলেন সব অভিযোগ মিথ্যা। তাঁর বিরুদ্ধে কুত্‍সা রটানোর উদ্যেশ্যেই এই অপপ্রচার করা হয়েছে। বিধায়কের দাবি পারিবারিক সমস্যা মেটাতেই তিনি থানায় হাজির হয়েছিলেন।

এই ঘটনা চাউর হতেই আজ সকালে গঙ্গাজলঘাটি থানায় হাজির হন কৃষ্ণ কুণ্ডুর স্ত্রী রূম্পা। তিনি থানায় হাজির হয়ে নিজের স্বামী কৃষ্ণ কুন্ডু ও বিধায়ক চন্দনা বাউরীর বিরুদ্ধে বেআইনি ভাবে বিয়ে করার অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ সেই লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা রুজু করেছে।

সূত্র: দ্য ওয়াল

আরও পড়ুন ::

Back to top button