কলকাতা

আমি মার খাচ্ছিলাম যাদবপুরে, বিজেপি নেতারা টিভিতে মজা দেখছিলেন: বাবুল

কয়েকদিন আগেই বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন বাবুল সুপ্রিয়। তৃণমূলে যোগ দিয়েই বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে কড়া ভাষায় আক্রমণ করছেন বাবুল সুপ্রিয়।

বাবুল সুপ্রিয়র কথায়, ‘যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে যেদিন মার খাচ্ছিলাম আমি সেইসময় টিভিতে তা দেখে মজা নিচ্ছিলেন বিজেপি নেতারা। ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে এবিভিপি-র একটি অনুষ্ঠানে গিয়েছিলাম আমি। সেখানেই আমায় ঘিরে ধরে বিক্ষোভ দেখায় যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের বামপন্থী মনোভাবাপন্ন পড়ুয়ারা। আমায় আক্রমণ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা। আমায় উদ্ধার করতে কোনও বিজেপি নেতা সেদিন এগিয়ে আসেননি। বাবুল কেমন ভাবে মার খাচ্ছে তা দেখে সবাই মজা নিচ্ছিল।’

আরও পড়ুন : ভবানীপুরকে ভাটপাড়া হতে দেবো না, মমতা জিতবেন ১ লক্ষের বেশি ভোটে! চ্যালেঞ্জ অভিষেকের

বাবুল সুপ্রিয় আরও বলেন, ‘যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা আমাকে আক্রমণ করেছিল। ওরা অবশ্য বাবুল সুপ্রিয়কে আক্রমণ করেনি, আমি সেই সময় যে রাজনৈতিক দলটা করতাম সেই বিজেপিকে আক্রমণ করেছিল ওরা। মার খেয়েও আমি পালিয়ে যাইনি। আমার চুলের মুঠি ধরে মেরেছিল যে ছেলেটা তার নাম, পরিচয় সব আমার কাছে। কিন্তু ওই ছেলেটার মা আমায় ফোন করে আর্জি জানিয়েছিল ক্ষমা করে দেওয়ার জন্য।

আমি তো পুলিশের কাছে কোনও অভিযোগ জানাইনি। কিন্তু বামপন্থী শতরূপ ঘোষ ওই ছেলেটাকে বসিয়ে বললেন, যত বার বাবুল সুপ্রিয় আসবে, তত বার চুলের মুঠি ধরে টানব। বামেদের আর রাজনৈতিক ভবিষ্যত নেই।’

সূত্র: আজকাল

আরও পড়ুন ::

Back to top button