রাজনীতিরাজ্য

রাজ্যসভা বয়কটের পথে বিরোধীরা

আগামিকাল সকাল থেকে সংসদ ভবনের সামনে দিনভর ধর্ণায় বসবেন রাজ্যসভায় বিরোধী দলের সমস্ত সাংসদ। এতদিন শুধুমাত্র সাসপেন্ড হওয়া বারো জন সাংসদ গান্ধি মূর্তির সামনে এই বিক্ষোভে দেখাচ্ছিলেন। এ বার রাজ্যসভার অধিবেশন বয়কট করে সেখানে বিক্ষোভ দেখাবেন অন্যান্য বিরোধী সাংসদরাও।

আজ সকাল দশটায় সংসদে আগামীদিনের রণকৌশল ঠিক করতে বৈঠক ডেকেছিল কংগ্রেস সেই বৈঠকেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সংসদ ভবনে কংগ্রেসের দপ্তরে এই বৈঠক হয়।অন্যান্য সমস্ত বিরোধী দলগুলি এই বৈঠকে উপস্থিত থাকলেও ছিল না তৃণমূল কংগ্রেস। তবে বিরোধী সাংসদদের ধর্ণায় তৃণমূল থাকবে বলেই খবর।

চলতি শীতকালীন অধিবেশনে কংগ্রেসের সঙ্গে দূরত্ব বজায় রেখেই চলেছে তৃণমূল শিবির। তাদের দাবি যেহেতু তৃণমূল কোনও জোট সরকারে নেই বা কোনও জোট গড়ে ভোটে লড়াই করেনি, ফলে কোনও দলের ডাকা বৈঠকে যেতে বাধ্য নয় তারা। যদিও ইস্যু ভিত্তিক সমর্থন করতে কোনও অসুবিধা নেই বলে জানিয়েছে তৃণমূল। অন্যদিকে আজ সকালে বিজেপির সংসদীয় দলের বৈঠকে দলের সাংসদদের রণনীতি বাতলে দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

আরও পড়ুন: বিজেপির জোটসঙ্গী তৃণমূলে!

এ দিকে, আজও সংসদে নাগাল্যান্ড ইস্যুতে ঝড় তুলেছে বিরোধীরা। বেলা দুটো পর্যন্ত মুলতবি হয়ে গিয়েছে রাজ্যসভার অধিবেশন। চিনা আগ্রাসন নিয়ে আজ সকালেই লোকসভায় মুলতুবি প্রস্তাব দিয়েছেন কংগ্রেস সাংসদ মণীশ তিওয়ারি। সংসদে গতকাল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের বিবৃতির পরে ওয়াকআউট করে বিরোধী শিবির। তবে সেই তালিকায় ছিল না তৃণমূল। তাদের যুক্তি ওয়াকআউট একমাত্র পথ নয়।

নাগাল্যান্ড ঘটনার জন্য গোয়েন্দা ব্যর্থতার অভিযোগ তোলেন তৃণমূলের লোকসভার নেতা সুদীপ বন্দোপাধ্যায়। তিনি বলেন, তৃণমূলের লোকসভার নেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আমরা আশা করেছিলাম যে সমস্ত নিরীহ মানুষের প্রাণ গিয়েছে, তাঁদের ক্ষতিপূরণের বিষয়টি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যে উল্লেখ থাকবে। দুর্ভাগ্যজনক ভাবে তা ছিল না। ওয়াকআউটের পর আমরা সেই বিষয়টি ফের তোলার চেষ্টা করেছি, আমাদের কথা শোনা হয়নি। কেন্দ্রীয় সরকার তার দায়িত্ব এড়িয়ে যেতে পারে না।”

সুযোগ পেলে ফের বিষয়টি তোলা হবে বলে জানিয়েছেন সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর আশঙ্কা, গোয়েন্দা ব্যর্থতা হয়ে থাকতে পারে নাগাল্যান্ডে। লোকসভায় তৃণমূলের মুখ্য সচেতক কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, “ওয়াকআউট করলেই কি সব সমস্যার সমাধান হয়ে যায় নাকি?কংগ্রেস দু’ মিনিটের জন্য ওয়াকআউট করে আবার ফিরে এসেছে। সারা দিনের জন্য ওয়াকআউট করলে তার একটা যুক্তি ছিল। এসব করে কোনও লাভ হয় না।”

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, আজ সকালে নাগাল্যান্ডের পরিস্থিতি নিয়ে সংসদ ভবনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠক করেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল। নাগাল্যান্ডের এনডিপিপি সাংসদ টি ইয়েপথোমি বলেছেন, “তদন্ত করা উচিত। ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিটি পরিবারকে ৫ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দিয়েছে রাজ্য সরকার। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলিকে কেন্দ্রীয় সরকারেরও ক্ষতিপূরণ দেওয়া উচিত।”

সুত্র: নিউজ ১৮ বাংলা

আরও পড়ুন ::

Back to top button